ফ্রান্সের উদ্যোগে ৩০শে আগস্ট আয়োজিতব্য সিরিয়া সম্পর্কে রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের জরুরী বৈঠকে সদস্য দেশগুলির বেশির ভাগ পররাষ্ট্রমন্ত্রী অংশগ্রহণ করতে অস্বীকার করেছেন. এঁদের মধ্যে রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরোভ এবং মার্কিনী পররাষ্ট্র সচিব হিলারী ক্লিন্টনও রয়েছেন, বুধবার জানিয়েছে “কমের্সান্ত” সংবাদপত্র. তাছাড়া, এ বৈঠকে অংশগ্রহণ করতে, হয়তো, অস্বীকার করবেন গ্রেট-বৃটেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী উইলিয়াম হেগ. এ সম্বন্ধে পত্রিকাকে জানিয়েছেন রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের সচিবালয়ের ঘনিষ্ঠ এক উত্স. মার্কিনীরা খোলাখুলিই ঘোষণা করেছে যে, রাশিয়া ও চীনের দ্বারা সিদ্ধান্ত গ্রহণে ভেটো প্রয়োগের পর সিরিয়া প্রশ্নে রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের উপর আর আশা প্রকাশ করে না এবং পরিষদকে এড়িয়েই কার্যকলাপ চালাবে, জোর দিয়ে বলেন পত্রিকার সংলাপী. রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী বৈঠকে অংশগ্রহণ করতে অস্বীকার করেছেন, কারণ প্রাথমিক আলাপ-আলোচনার পর্যায়েই প্রত্যক্ষ হয়ে ওঠে যে, কোনো চূড়ান্ত দলিল সর্বসম্মত করা যাবে না. রাশিয়া ও চীন এর উপর জোর দিচ্ছে যে, বয়ানে যেন প্রাধান্য থাকে মানবিকতাবাদী দিকের প্রতি. ফ্রান্স, গ্রেট-বৃটেন এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র চেষ্টা করছে রাজনৈতিক ঘোষণাপত্রের জন্য. এ দুই স্থিতির নৈকট্য বৃদ্ধি করা সম্ভব হয় নি, ব্যাখ্যা করে বলেন “কমের্সান্ত” পত্রিকার উত্স.