পশ্চিমী কূটনীতিজ্ঞরা সিরিয়াকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল দেশে সঙ্কট মীমাংসা করার, এই শর্তে যে, দামাস্কাস ইরানের সাথে, লেবাননের হেজবুল্লা আন্দোলন এবং প্যালেস্টাইনী হামাস আন্দোলনের সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করুক. এ সম্বন্ধে লিখেছে বৃটিশ পত্রিকা “ইন্ডিপেন্ডেন্ট” সিরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়ালিদ মুয়াল্লেমের উদ্ধৃতি দিয়ে. মুয়াল্লেম সঙ্কট মীমাংসায় দামাস্কাসকে সাহায্যের প্রস্তাব করা কূটনীতিজ্ঞদের দেশ ও পদের কথা জানান নি. মন্ত্রী নিজে মনে করেন যে, এমন দাবি সেই স্থিতির শর্তসাপেক্ষ ছিল, যা প্রকাশিত হয়েছিল মার্কিনী “ব্রুকিং ইনস্টিটিউশন” গবেষণা কেন্দ্রের রিপোর্টে. যোগ করে বলেন তিনি, “এ রিপোর্টে “তেহেরানের দিকে পথ” নামে অংশে প্রকাশিত হয়েছিল এ দৃষ্টিভঙ্গী – ইরানকে যদি ধরে রাখতে চান তাহলে শুরু করা দরকার দামাস্কাস থেকে”. কূটনীতিজ্ঞ আরও উল্লেখ করেন যে, সিরিয়ার কর্তৃপক্ষের মতে, “দামাস্কাসের বিরুদ্ধে তত্পর প্রধান খেলোয়াড় হল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, যে বাকি রাষ্ট্রগুলিকে নিজের হাতিয়ারে পরিণত করেছে”. সিরিয়ায় সঙ্ঘর্ষ চলছে ২০১১ সালের মার্চ থেকে. রাষ্ট্রসঙ্ঘের তথ্য অনুযায়ী, তাতে নিহত হয়েছে ১৭ হাজার জন. পশ্চিমী দেশগুলি এবং একসারি আরব রাষ্ট্র সিরিয়ার রাষ্ট্রপতি বাশার আসদ-কে তাঁর পদ থেকে অপসারণের চেষ্টা করছে, এ অনুমানে যে, তা হিংসা থামাবে. রাশিয়া ও চীন, উল্টে, উদ্বিগ্ন যে, সিরিয়ায় বাইরের হস্তক্ষেপ এবং রাষ্ট্রীয় সত্ত্বা হারানোর ফলে সঙ্ঘর্ষ গোটা অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়বে.