ফ্রান্সের রাষ্ট্রপতি ফ্রাঁসুয়া ওলান সোমবার রাশিয়া ও চীনের সমালোচনা করেছেন, যাদের স্থিতি, তাঁর ভাষায়, সিরিয়া সঙ্কট মীমাংসায় রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের ভূমিকা দুর্বল করছে. তাঁর কথায়, প্রয়োজন, যাতে নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য দেশগুলি সিরিয়া সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণের সময় দায়িত্ব-বোধের পরিচয় দেয়. তাছাড়া, ফ্রান্সের রাষ্ট্রপতি সিরিয়ার বিরোধীপক্ষকে আহ্বান জানান প্রতিনিধিত্বমূলক অন্তর্বর্তী সরকার গঠনের, যাকে তিনি স্বীকৃতি দিতে প্রস্তুত. ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূতদের ২০-তম বার্ষিক সম্মেলনে বক্তৃতা দিয়ে ওলান বলেন, “ফ্রান্স সিরিয়ার বিরোধীপক্ষের কাছে দাবি করছে অন্তর্বর্তী সরকার গঠনের, যা হবে প্রতিনিধিত্বমূলক এবং যা নতুন সিরিয়ার ন্যায়সঙ্গত প্রতিনিধি হতে পারে. ফ্রান্স নতুন সিরিয়ার সরকারকে স্বীকৃতি দেবে, যেই তা গঠিত হবে”. সিরিয়ার সঙ্কট চলছে প্রায় দেড় বছর ধরে. এ সময়ে, দেশের কর্তৃপক্ষের তথ্য অনুযায়ী, নিহত হয়েছে প্রায় ৮ হাজার জন, আর রাষ্ট্রসঙ্ঘের প্রতিনিধিদের তথ্য অনুযায়ী – প্রায় ১৭ হাজার জন. পশ্চিমী দেশগুলি এবং একসারি আরব দেশ রাষ্ট্রপতি বাশার আসদ-কে তাঁর পদ থেকে অপসারণের চেষ্টা করছে, এ অনুমানে যে, তা দেশে হিংসা থামাবে. রাশিয়া ও চীন তার বিপক্ষে মত প্রকাশ করছে, এ ভয়ে যে, সিরিয়ায় বিদেশী হস্তক্ষেপ এবং তার রাষ্ট্রীয় সত্ত্বা হারানো গোটা অঞ্চলে সঙ্ঘর্ষ প্রসার করবে. সিরিয়ার কর্তৃপক্ষ, নিজের তরফ থেকে ঘোষণা করছে যে, তারা অস্ত্রে সুসজ্জিত জঙ্গীদের প্রতিরোধের সম্মুখীন হচ্ছে, যাদের বিদেশ থেকে সাহায্য করা হচ্ছে.