সিরিয়া সম্পর্কে রাষ্ট্রসঙ্ঘ ও আরব রাষ্ট্র লীগের নতুন বিশেষ প্রতিনিধি লাহদার ইব্রাহিমী সিরিয়ার জাতীয় পরিষদের তরফ থেকে ক্ষমা চাওয়ার দাবি করেছেন. আগে সিরিয়ার জাতীয় পরিষদ সিরিয়ার রাষ্ট্রপতি বাশার আসদের ভাগ্য সম্বন্ধে ইব্রাহিমীর বিবৃতির সমালোচনা করেছিল, জানিয়েছে আন্তঃআরব টেলি-চ্যানেল “আল-জাজিরা”. টেলি-চ্যানেলকে প্রদত্ত ইন্টারভিউতে ইব্রাহিমী বলেন, “কারুর যদি ক্ষমা চাওয়ার থাকে. তাহলে ক্ষমা চাওয়া উচিত্ সিরিয়ার জাতীয় পরিষদের, যা আমার সাথে যোগাযোগ করে কথা বলতে পারত”. আগে তিনি বলেছিলেন যে, সিরিয়ার রাষ্ট্রপতি আসদের পদত্যাগের প্রয়োজনীয়তা সম্বন্ধে আলোচনা করার সময় এখনও মোটেই আসে নি. এ বিবৃতি সিরিয়ার জাতীয় পরিষদের সদস্যদের মাঝে নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া জাগিয়েছে, যারা ইব্রাহিমীর কাছ থেকে সিরিয়ার জনগণের কাছে সরকারী ক্ষমা প্রার্থনার দাবি করেছিল. আগে জানানো হয়েছিল যে, রাষ্ট্রসঙ্ঘ ও আরব রাষ্ট্র লীগের বিশেষ প্রতিনিধি কোফি আনন আগস্টের গোড়ায় পদত্যাগের কথা ঘোষণা করেন, এ যুক্তি দিয়ে যে, তাঁর দ্বারা প্রণীত মীমাংসার পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হচ্ছে না. রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সম্পাদক বান কি মুন আননের জায়গায় নিয়োগ করেন আলজিরিয়ার অভিজ্ঞ কূটনীতিজ্ঞ ইব্রাহিমীকে, এবং পৃথিবীর সব দেশকে আহ্বান জানান তাঁর কার্যকলাপ সব রকমে সাহায্য করতে. ইব্রাহিমী নিজে, যিনি সিরিয়া সমস্যা মীমাংসার জন্য তাঁর পক্ষে সম্ভাব্য সব কিছু করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, তবুও, নিজের মিশনের সাফল্য সম্বন্ধে সংযত আশাবাদ প্রকাশ করেন.