0রাষ্ট্রসঙ্ঘ ঘোষণা করেছে যে, শনিবারে সিরিয়াতে মানবাধিকার কমিশন পাঠাচ্ছে. এই কমিশনের কাজ হবে দেশে সরকার বিরোধী বিক্ষোভ শক্তি প্রয়োগে দমনের পরে পরিস্থিতির মূল্যায়ণ করা. সিরিয়ার সরকার আশ্বাস দিয়েছে যে, তাঁরা সম্পূর্ণ ভাবেই রাষ্ট্রসঙ্ঘের প্রতিনিধি দলের সঙ্গে সহযোগিতা করবে, যা এই সংস্থা থেকে প্রকাশিত এক ঘোষণাতে বলা হয়েছে. একই সময়ে সিরিয়ার সরকার আবার ঘোষণা করেছে যে, প্রতিবাদ মিছিলের বিরুদ্ধে সমস্ত রকমের সামরিক ও পুলিশি ব্যবস্থা নেওয়া বন্ধ করা হবে. সরকার বিরোধী বিক্ষোভ এই দেশে গত বছরের মার্চ মাস থেকে চলছে. আসাদ তাঁর আশ্বাস কি রকম ভাবে পালন করেন, তার প্রমাণ হবে সন্ধ্যা বেলাতেই. সিরিয়ার রাজনীতিবিদ হাইসাম বাদেরখান সাংবাদিকদের বলেছেন যে, দেশে ঈদের প্রার্থনার পরেই লোকে রাস্তায় বিক্ষোভ মিছিলে আবার সামিল হতে চলেছে. এর আগে বিরোধী পক্ষের নেতারা আবারও ঘোষণা করেছিলেন যে, মিছিলের উপরে গুলিবর্ষণ অব্যাহত রয়েছে. সিরিয়ার রাষ্ট্রপতি আশ্বাস দিয়েছেন য়ে, দেশে রাজনৈতিক সংশোধন করা হবে. কিন্তু আসাদ একই সঙ্গে জোর দিয়েছেন যে, সন্ত্রাসবাদী দলের সঙ্গে যুদ্ধের প্রয়োজন রয়েছে, যাদের তিনি এই মিছিলের আয়োজক বলেই মনে করেন.