দক্ষিণ ওসেতিয়ায় মঙ্গলবার ২০০৮ সালের আগস্টে জর্জিয়ার আক্রমণের চতুর্থ বার্ষিকী উপলক্ষে শোক অনুষ্ঠান হয়েছে. ২০০৮ সালের ৮ই আগস্ট জর্জিয়ার বাহিনী দক্ষিণ ওসেতিয়া আক্রমণ করে এবং তার রাজধানী স্থিনওয়ালির একাংশ ধ্বংস করে. দক্ষিণ ওসেতিয়ার বহু বাসিন্দা রাশিয়ার নাগরিকত্ব গ্রহণ করেছিল, তাই তাদের রক্ষার জন্য রাশিয়া এ প্রজাতন্ত্রে সৈন্যবাহিনী পাঠায় এবং পাঁচ দিন ব্যাপী সামরিক ক্রিয়াকলাপের পরে জর্জিয়ার বাহিনীকে এ অঞ্চল থেকে অপসারণ করে. শোক অনুষ্ঠান শুরু হয় ওসেতিয়ার চিত্রকরদের আঁকা ছবির প্রদর্শনী থেকে, যাঁরা দক্ষিণ ওসেতিয়ার রাজধানী স্থিনওয়ালির উপর আর্টিলারীর গোলাবর্ষণে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিলেন. ঐ যুদ্ধে নিহতদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য এসেছেন রাশিয়ার উত্তর ককেশীয় প্রজাতন্ত্রগুলির প্রতিনিধিরা, এবং তাছাড়া নিকট ও সুদূর বিদেশের ওসেতিনরা. দক্ষিণ ওসেতিয়ার রাষ্ট্রপতি লেওনিদ তিবিলোভ অতিথিদের ধন্যবাদ জানান প্রজাতন্ত্রকে সাহায্যের জন্য. তিনি বলেন, “আমরা সর্বদা স্মরণে রাখব মহান রাশিয়াকে, আমাদের বন্ধুদের, যারা বাস করছে পৃথিবীর বিভিন্ন জায়গায়. আজ তাঁদের অনেকেই এখানে এসেছেন. সেই কঠিন সময়ের স্মরণে সহমর্মিতা প্রকাশ করছেন. আমি আবার আপনাদের কৃতজ্ঞতা জানাতে চাই ২০০৮ সালের কঠিন দিনগুলিতে আমাদের সাহায্য করার জন্য”. নিজের তরফ থেকে দক্ষিণ ওসেতিয়ায় রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত এলব্রুস কার্গিয়েভ উল্লেখ করেন যে, রাশিয়া এ অঞ্চলে নিজের কর্তব্য পূর্ণ মাত্রায় পালন করেছে.