0সিনাই উপদ্বীপে জঙ্গী দলগুলির বিরুদ্ধে সংগ্রামের জন্য মিশরের শক্তির অভাব নেই. এ রকমই একটি জঙ্গীদল গত রবিবার ১৬ জন মিশরী সৈনিককে হত্যা করেছিল এবং ইস্রাইলে ঢুকে পড়ার চেষ্টা করেছিল. স্থানীয় রেডিও-কে প্রদত্ত ইন্টারভিউতে এ সম্বন্ধে বলেছেন ইস্রাইলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আভিগদোর লিবেরমান. সিনাইয়ে মিশরী বাহিনীর উপস্থিতি সীমিত আছে ১৯৭৯ সালের ক্যাম্প-ডেভিড শান্তি চুক্তি অনুযায়ী, আর এই সিনাই উপদ্বীপে ই মিশরের সীমানা রয়েছে ইস্রাইলের সাথে এবং প্যালেস্টাইনের গাজা অঞ্চলের সাথে. এ উপদ্বীপে অতিরিক্ত বাহিনী সমাবেশের জন্য ইস্রাইলী নেতৃবৃন্দের সম্মতি প্রয়োজন, যাঁরা একাধিকবার মিশরীয়দের তা দিয়েছেন. জঙ্গীরা রবিবার সিনাই উপদ্বীপের উত্তরাঞ্চলে মোতায়েন মিশরী সৈনিকদের আক্রমণ করে, ১৬ জনকে হত্যা করে এবং দখল করা সাঁজোয়া গাড়িতে প্রতিবেশী ইস্রাইলে ঢুকে পড়ার চেষ্টা করে, কিন্তু তাদের ধ্বংস করা হয়. এ আক্রমণের পরে মিশরের সশস্ত্র বাহিনীর সর্বোচ্চ পরিষদ মিশরের জনগণের প্রতি সম্বোধনে প্রতিশ্রুতি দেয় যে, “অপরাধীদের উপযুক্ত উত্তর দেওয়ার জন্য সম্ভাব্য সব কিছুই করবে”.