বরাবরের মতোই আজ ভারত-রাশিয়াঃ ঘটনা, মানুষ, তারিখ অনুষ্ঠাণে আমরা সেইসব মানুষ ও ঘটনাকে স্মরণ করবো, যারা ভারত ও রাশিয়ার সম্পর্কের ক্ষেত্রে ইতিহাসে বড় পদচ্ছাপ রেখেছে.

১৯৪১ সালের অগাস্ট মাস, সোভিয়েত ইউনিয়নের উপর হিটলারের নাত্সীবাহিনীর আক্রমণের দ্বিতীয় মাস. ভারতে কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর তখন মৃত্যুশয্যায়. যখনই তাঁর জ্ঞান ফিরতো, সাথে সাথে জিজ্ঞাসা করতেন – রাশিয়ায় কি অবস্থা? অবস্থা ছিল ভয়াবহ – নাত্সীবাহিনী মস্কোর দিকে অগ্রসর হচ্ছিল. মুমুর্ষু কবিগুরুকে হতাশ না করার জন্য বলা হয়েছিল, যে জার্মানদের আক্রমণ প্রতিহত করা হয়েছে. তিনি প্রত্যুত্তরে মুচকি হেসে বলেছিলেন “শুধু ওরাই এটা করতে পারে”. ১৯৩০ সালে রবীন্দ্রনাথ মস্কোয় এসেছিলেন, এখানকার বুদ্ধিজীবি, শ্রমিক ও কৃষকদের সাথে সাক্ষাত করেছিলেন, যে সম্পর্কে তাঁর বিবরণী আছে ‘রাশিয়ার চিঠি’ বইয়ে. তাকে সবচেয়ে বেশি অভিভূত করেছিল, যে ১০ বছরের মধ্যে এ দেশে হাজার হাজার মানুষ শুধু শিক্ষিতই হয়নি, তাদের ব্যক্তিত্ত্বও গড়ে উঠেছে. রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর পরলোকগমন করেছিলেন ১৯৪১ সালের ৭ই অগাস্ট.

পাকিস্তান ১৪ই অগাস্ট ৬৫-তম স্বাধীনতা দিবস পালন করবে. আমাদের দুই দেশের সম্পর্কে অনেক চাপান-উতোর ছিল. তবে এখন সম্পর্কের ক্রমশঃই উন্নতি হচ্ছে. যৌথ সরকারী কমিশন গড়া হয়েছে, জ্বালানী শক্তির বিষয়ে বিভিন্ন প্রকল্প তৈরি করা হয়েছে. পাকিস্তানের খনিজ তেল ও গ্যাস শিল্পের উন্নয়নে রাশিয়ার কয়েকটি কোম্পানী সাহায্য করবে, বিশেষতঃ গ্যাসের পাইপলাইন নির্মানে.

এই বছর ভারতও তার স্বাধীনতা অর্জনের ৬৫-তম বার্ষিকী পালন করবে. গত কিছুকালের মধ্যে বিশ্বে সবচেয়ে দ্রুত উন্নয়নশীল দেশের অন্যতমতে পর্যবসিত হয়েছে ভারত. রাশিয়া ও ভারতের মধ্যে সহযোগিতার মুল ক্ষেত্র হল – ভারী শিল্প, জ্বালানী শক্তি, ওষুধ-পত্র, বায়ো টেকনোলজি, আই.টি, পরিবহন, কৃষিক্ষেত্র ইত্যাদি. এই শরত্কালে কুদানকুলামে প্রথম পারমানবিক শক্তি ব্লক চালু হওয়ার কথা. রাশিয়া ভারতকে তার নতুন নেভিগেশন সিস্টেম ‘গ্লোনাসে’ যোগ দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছে. মস্কো ও সেন্ট-পিটার্সবার্গের মেট্রো নির্মাতারাও আবার ভারতে ফিরবে. তারা চেন্নাইয়ে মেট্রো বানাবে.

১৯৭৫ সালের ১৫ই অগাস্ট সামরিক অভ্যুত্থানের দরুন স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম রাষ্ট্রপ্রধান শেখ মুজিবর রহমান নিহত হন. তার মৃত্যুর ৩ বছর আগে তার মস্কো সফরকালে আমাদের দুই দেশের মধ্যে দীর্ঘমেয়াদী অর্থনৈতিক ও প্রযুক্তিগত সহযোগিতার চুক্তি স্বাক্ষর করা হয়েছিল. চলতি বছরের মে মাসে বাংলাদেশের রূপপুরে পারমানবিক বিদ্যুতকেন্দ্র চালু করে দেশে বিদ্যুত চাহিদার ১০% আগামী ১০ বছরের মধ্যে পূরণ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে. রাশিয়া কয়েক মাস পরেই নির্মাণকার্য শুরু করবে. ঐ পারমানবিক বিদ্যুতকেন্দ্রে কাজ করার জন্য বিশেষজ্ঞদেরও রাশিয়া উচ্চশিক্ষা দেবে.

আমাদের দেশগুলি মানব সভ্যতায় প্রজ্ঞা ও আমাদের দার্শনিক ও চিন্তাবিদদের রচনাবলীর দ্বারা বিশাল অবদান রেখেছে. এটা আমাদের পক্ষে ও সারা জগতের পক্ষে মঙ্গলজনক. তার এক সফরকালে প্রয়াত রাজীব গান্ধী বলেছিলেন – এটা খুব ভালো, যে আমাদের মধ্যে পারস্পরিক আস্থা ও সহযোগিতার সম্পর্ক গড়ে উঠেছে. রুশবাসীরা তাকে খুবই ভালোবাসতো. আগামী ২০শে অগাস্ট তার ৬৮ বছর বয়স পূর্ণ হতো.