সিরিয়ার দ্বিতীয় বড় শহর আলেপ্পো-তে মঙ্গলবার সরকারী বাহিনী এবং বিরোধীপক্ষের সশস্ত্র দলগুলির মাঝে নতুন সঙ্ঘর্ষ পরিলক্ষিত হয়েছে. এ সম্বন্ধে পশ্চিমী প্রচার মাধ্যম জানিয়েছে ঘটনাস্থল থেকে বিরোধী সক্রিয় কর্মীদের তথ্য উদ্ধৃত করে. আর্টিলারীর গোলাবর্ষণের আওয়াজ শোনা গেছে আলেপ্পো-র উপকণ্ঠ থেকে: সইদ আল-দাওলা এবং আল-আনসারি থেকে. তাছাড়া, সাক্ষীরা শহরের টেলিভিশন ও রেডিও ভবনের অঞ্চলে “কঠোর লড়াই এবং জোর বিস্ফোরণ” সম্বন্ধে জানিয়েছে. তাদের তথ্য অনুযায়ী, হতাহত আছে. গত রাতে সরকারের বিরোধী তথাকথিত সিরিয়ার স্বাধীন বাহিনী আলেপ্পো শহরের কয়েকটি অঞ্চল তথাকথিত “মুক্ত করার” খবর জানিয়েছে. তাদের কথায়, সরকারী বাহিনী ট্যাঙ্ক ও হেলিকপ্টারের সাহায্যে বিরোধীদের তাদের দ্বারা দখলিত এলাকা থেকে সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছে. জানানো হয়েছে যে, সিরিয়ার সরকারী বাহিনী বিগত ছুটির দিনগুলিতে রাজধানীর একসারি এলাকা নিজেদের নিয়ন্ত্রণে ফিরিয়ে আনতে পেরেছে, যা আগে বিরোধী দলগুলি দখল করেছিল. সিরিয়ায় সঙ্ঘর্ষ তীব্র হয়ে উঠছে সিরিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধির বিবৃতিতে বিশ্ব জনসমাজের ক্রমবর্ধমান উদ্বেগের পটভূমিতে. সোমবার সিরিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কর্তৃপক্ষের দ্বারা তার হাতে থাকা রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারের সম্ভাবনা বাদ দেয় নি. জিহাদ মাকদেসি বলেন, “আমরা রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করব শুধু বিদেশী আগ্রাসনের ক্ষেত্রেই”. তিনি তাছাড়া আশ্বাস দেন যে, “দেশে রাসায়নিক অস্ত্রের সমস্ত ভাণ্ডার সরকারী বাহিনীর নিয়ন্ত্রণে রয়েছে”.