আজ থেকে শুরু হয়েছে মুসলমানদের রমজান মাস. রমজান হল উদার হওয়ার দিন. এই শিরোনামে একতা তহবিলের উদ্দ্যোগে আজ থেকে মাস ব্যাপী শুরু হয়েছে সমাজসেবা মূলক কার্যক্রম. টানা ৪ বছর ধরে একতা তহবিলের কার্যক্রম চলছে এবং প্রতিবছরই এর ভৌগলিক সীমানা বৃদ্ধি পাচ্ছে. তহবিলের কর্মকর্তা ইউলিয়া আহমেদোভা বলেন, এই বিশেষ কর্মসূচি অংশ হিসেবেই আমরা রাশিয়ার বিভিন্ন অঞ্চল যেমন তাতারস্তান, বাশকারস্তান, দাগিস্তান, কারাচায়েভো-চেরকেসিয়া, কাবারদিনা-বালকারিয়া, চেচনিয়া, ইনগুশেটিয়া ও মস্কোতে কাজ করবো. তিনি জানিয়েছেন, “আমরা স্বল্প আয়ের পরিবারগুলো এবং এতিম শিশুদের জন্য খাদ্য সরবরাহ ও স্কুলের প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র এবং উপহার দেই এবং অবশ্যই আমরা ফিলিস্তেনের গাজাকে সাহায্য করার জন্য প্রচেষ্টা চালাবো. গত বছর আমরা সেখানে ঔষধপত্র পাঠিয়েছিলাম যা ওই অঞ্চলের জন্য অনেক জরুরী ছিল. এ বছর গাজায় স্বেচ্ছাসেবীরা কাজ করছেন. ফিলিস্তিনে আমরা সব সময় সাহায্য পাঠাই. সংগ্রহ করা অর্থের একটি অংশ রোগী ও এতিমদের জন্য ব্যয় করা হয়”.

রমজান মাস শুরু হওয়ার মধ্য দিয়ে প্রতিটি মানুষ ভাল কাজ করার সুযোগ পায়. রমজান হল উদার ও ভালবাসা তৈরীর সময়. রমজান হল সেই সময় যখন কষ্ট কমে যায় এবং বিশ্বাসের আলো জ্বলে ওঠে.

একতা তহবিলের স্বেচ্ছাসেবকরা রাশিয়ার বিভিন্ন অঞ্চলে কাজ করছেন.

ইউলিয়া আহমেদোভা বলেন, রমজান - উদার হওয়ার দিন শীর্ষক এই কার্যক্রমে যে কেউ অংশ নিতে পারবে. তিনি আরও বলেন, “আমাদের শুধুমাত্র ধনী লোকজনই সাহায্য করেন না, এমন কি ছাত্র-ছাত্রীরাও আছেন. সাহায্য করার উপায়ও অনেক. যেমন দুরারোগ্য রোগে আক্রান্ত শিশুদের সাহায্যে অর্থ দান করা যেতে পারে যাদের নাম আমাদের ওয়েব সাইটে দেয়া আছে. এছাড়া ইফতার ও স্বল্প আয়ের পরিবারের ভর-পোশনের জন্য অর্থ দান করা যায়. সেই সাথে গরীব পরিবারের শিশু ও এতিমদের জন্য স্কুলের প্রয়োজনীয় জিনিস উপহার দেয়া যায়.

পবিত্র কোরানের ২য় সুরা বাকারায় আল্লাহ পাক বলেন – “তোমরা আমাকে স্বরন করো আমিও তোমাদেরকে স্বরন করবো. আল্লাহ যাকে চায় তার পুরস্কার বাড়িয়ে দেয়".