পশ্চিমী দেশগুলির প্রতিনিধিরা রাষ্ট্রসঙ্ঘে বুধবার সন্ধ্যায় সিরিয়া সম্পর্কে সিদ্ধান্তের পরবর্তী খসড়া প্রচার করেছে. এ খসড়ায় সিরিয়ার রাষ্ট্রপতি আসদের কাছে চরম দাবির রূপে প্রস্তাব করা হয়েছে সিরিয়ার আভ্যন্তরীন সঙ্ঘর্ষ মীমাংসা সম্পর্কে রাষ্ট্রসঙ্ঘের বিশেষ প্রতিনিধি আননের পরিকল্পনার দাবি ১০ দিনের মধ্যে পালন করার. অন্যথায় পাশ্চাত্য “রাষ্ট্রসঙ্ঘের সংবিধির ৪১ নম্বর অধ্যায় ব্যবহার করে অবিলম্বে ব্যবস্থা গ্রহণের” উপর জোর দেবে. তা অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা প্রবর্তনের অনুমতি দেয়, তবে তৃতীয় দেশে সামরিক হস্তক্ষেপের অনুমতি দেয় না. এমন দাবি সম্বলিত খসড়া সিদ্ধান্ত প্রস্তুত করেছে বৃটেন, ফ্রান্স, জার্মানি এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, সেই খসড়া সিদ্ধান্তের বিপরীতে, যা প্রস্তাব করেছে রাশিয়া, এবং যাতে সিরিয়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞার উল্লেখ নেই. এর আগে পাশ্চাত্য সিরিয়ার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রসঙ্ঘের সংবিধির সপ্তম অধ্যায় অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণের প্রস্তাব করেছিল, যাতে সেই সব দেশের বিরুদ্ধে বল প্রয়োগের সম্ভাবনা অনুমিত, যাদের নীতি আন্তর্জাতিক শান্তি ও নিরাপত্তা বিপন্ন করে.