রাষ্ট্রসঙ্ঘ লিবিয়ার নতুন কর্তৃপক্ষের সাথে সহযোগিতা করতে প্রস্তুত, লিবিয়াবাসীদের মাঝে ন্যায় ও আপোষ অর্জনের আশা করে. এ সম্বন্ধে রবিবার বলেছেন রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সম্পাদক বান কি মুন ঐ দেশে অনুষ্ঠিত নির্বাচন উপলক্ষে – মুয়ম্মার গদ্দাফির শাসনের উত্খাতের পরে এটি প্রথম নির্বাচন. প্রায় ৬৩ শতাংশ লিবিয়াবাসী ৭ই জুলাই দেশের সর্বোচ্চ বিধানিক সংস্থা –সর্বসাধারণ জাতীয় কংগ্রেসের নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে. কংগ্রেসের কর্তব্য হবে মন্ত্রীপরিষদ গঠন করা, অন্তর্বর্তী কালে দেশের নিয়ন্ত্রণ করা এবং তাছাড়া নির্বাচন সংক্রান্ত আইন গ্রহণ করা.