তথাকথিত “সিরিয়ার বন্ধুদের গ্রুপের” পরবর্তী সম্মেলন শুক্রবার শুরু হচ্ছে প্যারিসে. এ গ্রুপে ঐক্যবদ্ধ আছে পাশ্চাত্য, পারস্য উপসাগর ও নিকট প্রাচ্যের একসারি দেশ, যারা সিরিয়ার বিরোধীপক্ষের পক্ষ নিয়েছে. এ সম্মেলনটি হবে তৃতীয়, টিউনিশিয়ায় ও ইস্তাম্বুলে অনুরূপ সম্মেলনের পরে. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং সিরিয়ার প্রশ্নে তার সহযোগী দেশগুলি ঘোষণা করছে যে, আসন্ন সাক্ষাতের উদ্দেশ্য হল সিরিয়ার কর্তৃপক্ষের উপর, দেশের রাষ্ট্রপতি বাশার আসদের উপর চাপ বাড়ানো, সিরিয়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা কঠোর করা. রাশিয়া ও চীন, আগের মতোই, এ সম্মেলনে অংশগ্রহণ করছে না. রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরোভ বলেন যে, এই “বন্ধুদের গ্রুপের”, বাস্তবিকপক্ষে গোড়া থেকেই “উদ্দেশ্য ছিল শুধু একটি পক্ষকে সমর্থন করা, আর তাও আভ্যন্তরীন বিরোধী পক্ষকে নয়, সিরিয়ার বিরোধীপক্ষের বিদেশী গ্রুপকে”. লাভরোভের কথায়, রাশিয়ার পক্ষে তা গ্রহণযোগ্য নয়.