রুশ-ভারত যৌথ প্রতিষ্ঠান “ব্রামোস এয়ারস্পেস” হাইপার-সোনিক ক্রুইজ মিসাইল তৈরী নিয়ে কাজ শুরু করেছে, বৃহস্পতিবার “ইন্টারফাক্স-এ.বি.এন” সংবাদ এজেন্সিকে জানিয়েছেন যৌথ-প্রতিষ্ঠানের পরিচালক শ্রী এস. পিল্লাই. তিনি উল্লেখ করেন যে, যৌথ-প্রতিষ্ঠান এখন উক্ত প্রকল্পের জন্য সঙ্গতি খুঁজছে. তাঁর কথায়, সম্পাদিত কাজ এ আশা করার সুযোগ দেয় যে, নিকট ভবিষ্যতে “হাইপার-সোনিক ব্যবস্থার রূপরেখা ও আকার নিরূপণ করা হবে”. রুশ-ভারত সুপারসোনিক ক্রুইজ মিসাইল “ব্রামোস” যাতে বিদেশী বাজারে বিক্রি হয় তার জন্য গুরুত্বপূর্ণ হল ভারতীয় বাহিনীর পরে রাশিয়ার বাহিনীও যেন এ রকেটে সজ্জিত হয়, যোগ করে বলেন শ্রী পিল্লাই. রুশ-ভারত “ব্রামোস” প্রতিষ্ঠান (ব্রামোস এয়ারস্পেস লিমিটেড) ভারতে গঠিত হয় ১৯৯৮ সালে জাহাজ-বিরোধী সুপারসোনিক রকেট উত্পাদনের জন্য. এই “ব্রামোস” রকেট তৈরি করা হয়েছে রাশিয়ার “ইয়াখোন্ত” রকেটের ভিত্তিতে, যার বৈশিষ্ট্যগুলি প্রায় “ব্রামোস” রকেটের মতোই. এ ধরণের রকেটের বৈশিষ্ট্য হল উচ্চ গতিশীলতা, সম্ভাব্য ট্যাক্টিক্যাল স্কীমের বৈচিত্র্য ও ব্যবহারের প্রণালী, তা স্থাপনের বিভিন্ন ধরণ (জাহাজে, সাবমেরিনে, বিমানে এবং সমুদ্র উপকূলে) অনুযায়ী তার উপযোগিতা.