শিয়ায় প্রথম ‘চোখ’ নামক বিবিধ খেলার প্রশিক্ষণ শিবির খোলা হয়েছে প্যারাঅলিম্পিক ক্রীড়াবিদদের জন্য. ঐ কেন্দ্র শুধু প্রতিবন্ধী ক্রীড়াবিদদের প্রশিক্ষণই দেবে না, আন্তর্জাতিক মানের প্রতিযোগিতারও আয়োজন করতে পারবে. আলেক্সিনে ঐ প্রশিক্ষণ শিবিরে লন্ডনে প্যারাঅলিম্পিক শুরু হওয়ার আগে শেষধাপের অনুশীলন শুরু হবে এখন থেকে একমাস পরেই.

মস্কো থেকে ১৫০ কিলোমিটার দূরে তুলা জেলার আলেক্সিন প্যারাঅলিম্পিয়ানদের জন্য শুধুমাত্র লন্ডনের অলিম্পিকের আগে প্রতিবন্ধী ক্রীড়াবিদদের প্রশিক্ষণ শিবির হবে না, ২০১৪ সালের সোচি শ্বেত অলিম্পিকেরও প্রশিক্ষণ কেন্দ্র হবে. আগে ‘চোখ’ ছিল বাইসাইক্লিস্টদের প্রশিক্ষণের সাধারণ শিবির. ৫০০ কোটি ইউরো খরচ করে বিশাল পুণর্নির্মান সম্পন্ন করার পরে, সাইকেলের ট্র্যাক ছাড়াও ফুটবল মাঠ, বাস্কেটবলের কোর্ট, আইস রিং, পাওয়ার লিফটিংয়ের হল, সুইমিং পুল, স্বাস্থ্যোদ্ধার কেন্দ্র খোলা হয়েছে. এক কথায়, অতঃপর তুলা জেলায় একসাথে প্যারাঅলিম্পিকের পুরো জাতীয় টীম প্র্যাকটিস করতে পারবে. রাশিয়ার ক্রীড়ামন্ত্রী ভিতালি মুতকো বলছেন, যে অদূর ভবিষ্যতে রাশিয়ার সব অঞ্চলে অনুরূপ ক্রীড়াকেন্দ্র গড়া হবে.

এটা বিবিধ খেলার কেন্দ্র. ওখানে এমনকি প্রতিবন্ধী ক্রীড়াবিদরা গ্রাস হকিও অনুশীলন করতে পারবে. কয়েকবছর আগে আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম, যে ২০১৫ সাল নাগাদ অলিম্পিয়ান ও প্যারাঅলিম্পিয়ানদের কয়েকটি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র বানানো হবে. গত ৩-৪ বছরে আমরা গোটা দশেক এরকম প্রশিক্ষণ কেন্দ্র বানিয়েছি. ক্রীড়াবিদদের প্রস্তুতির প্রক্রিয়ায় যেমন অনুশীলন, তেমনই স্বাস্থ্যোদ্ধার অত্যন্ত গুরূত্বপূর্ণ. এটা একধরনের ল্যাবরেটরি, যা আমাদের ক্রীড়াবিদদের মুখ্য সব আন্তর্জাতিক টুর্ণামেন্টের জন্য প্রস্তুত করে দেবে.

প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে ক্রীড়াবিদদের থাকার জন্য আধুনিক হোটেল নির্মাণ করা হয়েছে. রাষ্ট্রীয় দ্যুমার সাংসদ সের্গেই পাদদুবনি, যিনি নিজেই প্রতিবন্ধীদের জন্য চেয়ারে চলাচল করেন, তিনি বলছেন, যে হোটেল বানানোর সময় প্রতিবন্ধী ক্রীড়াবিদদের মতামত বিবেচনা করা হয়েছিল.

উপরোক্ত প্রশিক্ষণ কেন্দ্র শুধু দেশে অন্যতম সেরা নয়, তা আন্তর্জাতিক মানের. যাদের শ্বাসকষ্ট, তাদের জন্য সমস্ত সুবিধার বন্দোবস্ত করা হয়েছে, যাতে কষ্ট না হয়. নির্মাণ কাজ চলার সময় আমরা প্রতিবন্ধী খেলোয়াড়রা প্রস্তাব দিয়েছিলাম যাতে প্ল্যটফর্ম সুবিধাজনক হয়, সেইজন্য তার মডেল বদলানোর. শিবিরের প্রশাসকরা আমাদের মতামতে কান দিয়েছে. প্যারাঅলিম্পিয়ানদের তরফ থেকে বলছি, যে লন্ডনে আমরা যথাসম্ভব ভালো ফলাফল করার চেষ্টা করবো.

প্যারাঅলিম্পিয়ানদের অনুশীলন শুরু হওয়ার আগে ‘চোখ’ প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে কয়েকটি টুর্ণামেন্ট অনুষ্ঠিত হবে. ২ সপ্তাহ পরে প্রতিবন্ধী মেয়েদের ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশীপ সেখানে অনুষ্ঠিত হবে.