আমেরিকার টেক্সাস স্টেটের সবচেয়ে বড়শহর হিউস্টন, যেখানে ‘নাসা’র মহাকাশ অভিযানের পরিচালনা কেন্দ্র অবস্থিত, সেখানে ইউরি গাগারিনের স্মৃতিমূর্তি বসানো হবে. পৃথিবীর প্রথম মহাকাশচারীর স্মৃতিমূর্তি বসানোর খরচ বহন করছে ‘সংস্কৃতির সংলাপ – এক বিশ্ব’ নামক দাতব্য সামাজিক তহবিল. আজ, ২১শে জানুয়ারী স্মৃতিস্তম্ভের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপণ করা হবে.

১৯৬১ সালে ‘ভস্তোক’ নামক রকেটে চড়ে গাগারিন ইতিহাসে প্রথম মহাকাশ যাত্রা করেছিলেন. প্রথম মহাকাশচারীকে তাঁর সমসাময়িক লোকেরা মনে রেখেছে যুবক, হাসিখুশি ও আন্তরিক মানুষ হিসাবে. সেরকমই তার ব্রোঞ্জের স্মৃতিমূর্তি বানিয়েছেন রুশী ভাস্কর আলেক্সেই লিওনভ. ইউরি গাগারিন দুহাত তুলে হাসিমুখে আকাশের দিকে তাকিয়ে আছেন. ‘সংস্কৃতির সংলাপ – এক বিশ্ব’ তহবিলের অধ্যক্ষ রুসলান বাইরামভ ‘রেডিও রাশিয়া’কে দেওয়া সাক্ষাত্কারে আরও একটা আগ্রোহদ্দীপক প্রকল্প সম্পর্কে বলেছেন.

আমাদের তহবিল আরও একটা বড় প্রকল্প বাস্তবায়িত করবে, যার নাম ‘এথনোওয়ার্ল্ড’, কালুগা জেলায়. সেখানে ১০০ বছর আগে বসবাস করতেন মহান রুশী মহাকাশ বিজ্ঞানী কনস্তানতিন তসিওলকোভস্কি, যিনি প্রথম ভেবে বের করেন ও হিসাব করে দেন মানুষের মহাকাশযাত্রার ধারনা. আমরা চাইছি আমেরিকার ও রাশিয়ার ‘মহাকাশ’কে হিউস্টন ও কালুগার মধ্যে মিলিয়ে দিতে.

গত বছর গাগারিনের বৃটেন সফরের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে লন্ডনে তার স্মৃতিমূর্তি স্থাপণ করা হয়. বাকিংহ্যাম প্রাসাদ থেকে ট্রাফালগার স্কোয়ারে যাওয়ার পথ মেল এ্যালেইতে শাসক কতৃপক্ষ স্মৃতিমূর্তি স্থাপণ করার জন্য জমি দিয়েছিল. ঐ রাস্তা দিয়ে ইউরি গাগারিন গেছিলেন বৃটেনের রাণীর সাথে সাক্ষাত করতে বাকিংহ্যাম প্রাসাদ. প্রথম মহাকাশচারীর স্মৃতিস্তম্ভ স্থাপণ করা হয়েছে লন্ডনে জেমস কুকের স্মৃতিস্তম্ভের ঠিক উল্টোদিকে, যিনি তার ২ শতাব্দী আগে পালতোলা জাহাজে চড়ে পৃথিবী পরিক্রমা করেছিলেন. রুসলান বাইরামভ বলছেন, যে তাদের দাতব্য সামাজিক তহবিল এই অভিমুখে কর্মকান্ড চালিয়ে যাবে.

এখন আমরা যেটা করছি সেটা হল মুলতঃ বিভিন্ন যুগের মহাপুরুষদের আবক্ষমূর্তি উপহার দেওয়া. আমাদের তহবিলের কর্তব্য এমন সব জায়গা তৈরি করা, যেখানে লোকেরা বোঝাপড়া করে নিতে পারবে, নিজস্ব বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে বলতে পারবে ও দুনিয়াকে ঐক্যবদ্ধ করবে. সেইজন্যেই গাগারিন ও অন্যান্যদের স্মৃতিমূর্তি আমাদের লক্ষ্যের সাথে খাপ খায়.

0দাতব্য তহবিলের অধ্যক্ষ রুসলান বাইরামভ আজ স্মৃতিমূর্তির আনুষ্ঠানিক ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপণের অনুষ্ঠাণে রুশী প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেবেন. আর অক্টোবরে গাগারিনের স্মৃতিমূর্তি উন্মোচনের অনুষ্ঠাণে যাবেন রুশী ও মার্কিনী মহাকাশচারীরা