রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরোভ বৃহস্পতিবার কাবুলে যাচ্ছেন, সেখানে তিনি মন্ত্রী পর্যায়ে আফগানিস্তান সংক্রান্ত আঞ্চলিক সম্মেলনে অংশগ্রহণ করবেন. সম্মেলনে যে সব প্রশ্ন আলোচনার পরিকল্পনা আছে, তাতে আছে – আফগানিস্তানে নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করার দায়িত্ব হস্তান্তর, জাতীয় আপোষের প্রক্রিয়া, সন্ত্রাসবাদ ও নার্কোটিক-অপরাধের বিরুদ্ধে সংগ্রাম. তাছাড়া, সম্মেলনের অংশগ্রহণকারীরা আলোচনা করবেন শরণার্থী সমস্যা, অর্থনৈতিক সহযোগিতা, অঞ্চলে বিভিন্ন ক্ষেত্রে আস্থার ব্যবস্থা সুদৃঢ় করা, জানানো হয়েছে রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে. ২০১১ সালের ২রা নভেম্বর ইস্তাম্বুলের আঞ্চলিক সম্মেলনের ফলাফলের বিকাশ হিসেবে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে. রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে বলা হয়েছে যে, আফগানিস্তানের পুনর্গঠন এবং আধুনিকীকরণের কাজে শরিকানার জন্য রাশিয়া উন্মুক্ত. রাশিয়া তাছাড়া “CASA-1000” নামে আঞ্চলিক প্রকল্পে অংশগ্রহণের জন্যও প্রস্তুত, যে প্রকল্প অনুযায়ী তাজিকিস্তান ও কির্গিজিয়া থেকে বিদ্যুত্শক্তি আফগানিস্তান ও পাকিস্তানে সরবরাহের ব্যবস্থা গঠনের কথা. রাশিয়ার পক্ষ তাছাড়া “তাপি” (তুর্কমেনিস্থান – আফগানিস্তান – পাকিস্তান – ভারত) গ্যাস পাইপ লাইনের নির্মাণেও অংশগ্রহণ করতে প্রস্তুত. মস্কো তাছাড়া আফগান রাষ্ট্রকে প্রয়োজনীয় সাহায্য দিয়ে যাচ্ছে জাতীয় কর্মী-দলের প্রস্তুতিতে, সেই সঙ্গে পুলিশ, সামরিক কর্মী ও নার্কোটিক-বিরোধী কর্মীদের প্রস্তুতিতে, এবং তাছাড়া মানবতাবাদী ও শিক্ষা ক্ষেত্রের কর্মীদের প্রস্তুতিতে. শাংহাই সহযোগিতা সংস্থায় আফগানিস্তানকে পর্যবেক্ষক-দেশের স্থিতি দেওয়া মস্কো সমর্থন করে. রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে উল্লেখ করা হয়েছে যে, পরিপ্রেক্ষিতে আফগানিস্তান এ সংস্থার পূর্ণাধিকারী সদস্য হতে পারে.