অর্থনীতি এবং অন্যান্য ক্ষেত্রে রাশিয়া ও চীনের সহযোগিতা অর্থনৈতিক ও আন্তর্জাতিক স্থিতিশীলতার গুরুত্বপূর্ণ উপাদান, বলেছেন ভ্লাদিমির পুতিন. বুধবার বেজিংয়ে তাঁর সাক্ষাত্ হয় চীনা গণ-প্রজাতন্ত্রের উপ-সভাপতি সি জিনপিনের সাথে. রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি আশা প্রকাশ করেন যে, তাঁর সফর এবং রাশিয়া ও চীনের মাঝে উচ্চ পর্যায়ে আসন্ন যোগাযোগ “সর্বমুখী স্ট্র্যাটেজিক শরিকানার” আরও বিকাশে সহায়তা করবে, সেই সঙ্গে সামরিক বিভাগগুলির মাঝে সহযোগিতাও. তিনি মনে করিয়ে দেন যে, সম্প্রতি পীত সাগরে ইতিহাসে প্রথম রাশিয়া ও চীনের নৌবাহিনীর মিলিত মহড়া হয়েছে. নিজের চীন সফরের কথায় এসে পুতিন উল্লেখ করেন যে, তা খুবই সফলভাবে চলছে. সি জিনপিন নিজের তরফ থেকে বলেন যে, সম্প্রতিকালে রাশিয়ার সরকারের বহু প্রতিনিধির সাথে তাঁর সাক্ষাত্ হয়েছে. তাঁর কথায়, এমন প্রখর যোগাযোগ – “বিশেষ মৈত্রী সম্পর্কের উজ্জ্বল লক্ষণ. আমাদের স্থিরবিশ্বাস যে, চীনা-রুশী সম্পর্কের আরও বিকাশের জন্য আমদের সামনে বিস্তৃত দিগন্ত উন্মুক্ত”.