লিবিয়ায় জন্ম হওয়া আবু আহায়া আল-লিবি এ সপ্তাহে পাকিস্তানে নিহত হয়েছে মার্কিনী ড্রোন বিমানের আঘাতের ফলে. তাকে “আল-কাইদা” সন্ত্রাসবাদী সংস্থায় দ্বিতীয় ব্যক্তি বলে বিবেচনা করা হত মিশরের আইমান আজ-জাওয়াহিরির পরে, যে উসামা বিন লাদেনের মৃত্যুর পরে “আল-কাইদার” নেতৃত্ব করছে. ২০০৫ সালে আল-লিবি আফগানিস্তানের “বাগ্রামে” মার্কিনী সামরিক ঘাঁটির জেলখানা থেকে পালিয়েছিল. ২০০৯ সালে ফেডারেল তদন্ত ব্যুরো এ জঙ্গীর অবস্থান স্থল সম্বন্ধে খবর দেওয়ার জন্য দশ লক্ষ ডলারের পুরস্কার ঘোষণা করেছিল. পাকিস্তানের তালিবরা তার মৃত্যু সমর্থন করেছে. হোয়াইট হাউজের সরকারী প্রতিনিধি জে কারনি এ ঘটনাকে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদের উপর “শক্তিশালী আঘাত” বলে অভিহিত করেছেন, জানিয়েছে “রিয়া নোভস্তি” সংবাদ এজেন্সি.