ইউরোসঙ্ঘে রাশিয়ার কূটনৈতিক মিশনের প্রধান ভ্লাদিমির চিঝোভ সিরিয়ার হুলা গ্রামে বিপর্যয়ের প্রতিক্রিয়া হিসেবে ইউরোসঙ্ঘের সদস্য রাষ্ট্রগুলির দ্বারা সিরিয়ার রাষ্ট্রদূতদের ফেরত পাঠানোর ফলপ্রসূতা সম্বন্ধে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন. তিনি “ইন্টারফাক্স” সংবাদ এজেন্সিকে বলেন, “বিরোধের প্যাঁচ কষা সহজ, কিন্তু তা থেকে বের হওয়া কঠিন”. সেই সঙ্গে, রাশিয়ায় বিশ্বাস করা হচ্ছে যে, সিরিয়ায় সঙ্কট এখনও কূটনৈতিক উপায়ে মীমাংসা করা যেতে পারে.রাশিয়ার উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী গেন্নাদি গাতিলোভের কথায়, এর প্রমাণ পাওয়া যায় সিরিয়ায় মীমাংসা সংক্রান্ত রাষ্ট্রসঙ্ঘ ও আরব রাষ্ট্র লীগের বিশেষ প্রতিনিধি কোফি আননের সাম্প্রতিক সিরিয়া সফর থেকে. জানানো হয়েছে যে, গত সপ্তাহের শেষে সিরিয়ার হুলা গ্রামে হত্যা করা হয়েছে অন্ততপক্ষে ১০৮ জনকে, যাদের বেশির ভাগই নারী এবং শিশু. রাষ্ট্রসঙ্ঘের পর্যবেক্ষকদের তথ্য অনুযায়ী, ট্যাঙ্ক ও আর্টিলারীর গোলা বর্ষণে গ্রামে নিহত হয়েছে ২০ জনেরও কম লোক, বাকিদের খুব কাছ থেকে গুলি করে মারা হয়েছে, অথবা ছোরা মেরে খুন করা হয়েছে. সিরিয়ার কর্তৃপক্ষ এতে সরকারী বাহিনীর জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করেছে এবং ঘোষণা করেছে যে, হুলার হত্যাকাণ্ড – সন্ত্রাসবাদীদের কাজ. গাতিলোভ হুলার শান্তিপূর্ণ অধিবাসীদের মৃত্যুর কারণ সম্বন্ধে রাষ্ট্রসঙ্ঘের মিশনের সিদ্ধান্তের অপেক্ষা করার আহ্বান জানিয়েছেন.