মিশরে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের প্রথম রাউন্ডের ফলাফলের বিরুদ্ধে প্রতিবাদকারীরা সোমবার একজন প্রার্থী এবং দেশের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি হোসনি মুবারকের প্রাক্তন সহযোগী – আহমেদ শফিকের নির্বাচনী দপ্তর পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে. এ সম্বন্ধে জানিয়েছে স্থানীয় প্রচার মাধ্যম. দপ্তর পোড়ানোর আগে প্রতিবাদকারীরা দপ্তরে ঢুকে ভাঙচুর করে. কেউ হতাহত হয় নি. এদিকে, কয়েক শো লোক সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীর কেন্দ্রস্থলে তহরির চকে সমবেত হয়েছিল. তারা ভোটদানের প্রথম রাউন্ডের ফলাফলের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানায় এবং নতুন নির্বাচন আয়োজনের দাবি করে. মিশরের কেন্দ্রীয় নির্বাচনী কমিশনের তথ্য অনুযায়ী, আহমেদ শফিক এবং ইস্লামিক “ভাই মুসলমান” আন্দোলনের প্রতিনিধি মুহম্মেদ মুর্সি রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের দ্বিতীয় রাউন্ডে উত্তীর্ণ হয়েছেন, কারণ মিশরের রাষ্ট্রপতি পদের কোনো প্রার্থী ৫০ শতাংশের বেশি ভোট পান নি, যা বিজয়ের জন্য প্রয়োজন. নির্বাচনের দ্বিতীয় রাউন্ড অনুষ্ঠিত হবে ১৬-১৭ই জুন. নির্বাচনী কমিশনের তথ্য অনুযায়ী, ভোটদানের প্রথম রাউন্ডে মুর্সি পেয়েছেন প্রায় ৫৭ লক্ষ ৬৪ হাজার ভোট, আর শফিক – ৫৫ লক্ষের সামান্য বেশি ভোট.