মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সিনেট (পার্লামেন্টের উচ্চ কক্ষ) একমতে অনুমোদন করেছে ইরানের বিরুদ্ধে পরবর্তী অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা, মঙ্গলবার জানিয়েছে “রিয়া নোভস্তি” সংবাদ এজেন্সি.সিনেটের দ্বারা গৃহীত আইনের খসড়া অনুযায়ী, ইস্লামিক বিপ্লবের রক্ষী বাহিনীর বিরুদ্ধে নতুন নিষেধাজ্ঞা জারি করার কথা এবং সমস্ত কোম্পানি, যাদের শেয়ারের কেনা-বেচা হয় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে, ইরানের সাথে যে কোনো কারবার সম্পর্কে বন্ড-পেপার সংক্রান্ত কমিশনকে জানাতে বাধ্য. তাছাড়া, জ্বালানী ক্ষেত্রে ইরানের সাথে যেকোনো যৌথ প্রকল্পকেও নতুন নিষেধাজ্ঞা স্পর্শ করবে. এ আইনের খসড়া অনুযায়ী পৃথক পৃথক ব্যক্তি এবং কোম্পানির কর্মীদের বিরুদ্ধে ভিসার নিষেধাজ্ঞা জারি হবে, যারা ইরানের সরকারকে মিছিল ছত্রভঙ্গ করার জন্য ব্যবহৃত বস্তু সরবরাহ করবে. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি কক্ষ (পার্লামেন্টের নিম্ন কক্ষ) ডিসেম্বর মাসেই এ আইনের খসড়ার নিজস্ব ধরণ অনুমোদন করেছিল, এখন কংগ্রেসের উভয় কক্ষকে দুই বয়ান সর্বসম্মত করতে হবে. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং পাশ্চাত্যের অন্যান্য দেশ ইরানের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলছে শান্তিপূর্ণ পারমাণবিক কর্মসূচির আড়ালে পারমাণবিক অস্ত্র তৈরি করার. তেহেরান এ সব অভিযোগ অস্বীকার করছে, এ কথা ঘোষণা করে যে, তার পারমাণবিক কর্মসূচি নির্দেশিত নিছক দেশের বিদ্যুত্শক্তির চাহিদা মেটানোর জন্য.