রাশিয়ার আগের মতোই প্রশ্ন জাগায় ২০১৪ সালের পরে আফগানিস্তানে সামরিক উপস্থিতি বজায় রাখা সম্পর্কে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পরিকল্পনা. এ সম্বন্ধে মস্কোয় আফগানিস্তান সংক্রান্ত আন্তর্জাতিক সম্মেলনে বলেছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দ্বিতীয় এশিয়া বিভাগের আফগান দপ্তরের অধিকর্তা অ্যালবের্ত খোরেভ. তিনি ব্যাখ্যা করে বলেন, মস্কো উদ্বিগ্ন যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ২০১৪ সালে নিজের বাহিনীর মুখ্য অংশ অপসারণের কথা ঘোষণা করে একই সঙ্গে নিজের সামরিক পরিকাঠামোর সুদৃঢ়করণ করছে “স্পষ্ট ম্যান্ডেট, উদ্দেশ্য ও তার কার্যকারিতার মেয়াদ ছাড়াই”. খোরেভ উল্লেখ করেন যে, নার্কোটিক বিপদের বিরুদ্ধে সংগ্রামে আফগান কর্তৃপক্ষের দ্বারা গৃহীত ব্যবস্থা এবং আন্তর্জাতিক জনসমাজের সাহায্য অনুভবযোগ্য ফল দিচ্ছে না. রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, আফগানিস্তানে ২০১১ সালে আফিং-পপি চাষের এলাকা ২০১০ সালের তুলনায় ৭ শতাংশ বেড়েছে, আর এ সময়ে নার্কোটিকের উত্পাদন বেড়েছে ৬০ শতাংশ. সেইজন্য, তাঁর কথায়, আফগানিস্তানে নিরাপত্তায় সহায়তা করা আন্তর্জাতিক বাহিনীর এ দেশ থেকে অপসারণের উপকারিতা সম্বন্ধে প্রশ্ন উঠছে. খোরেভ আরও বলেন যে, মস্কোয় সন্দেহ প্রকাশিত হচ্ছে যে ২০১৪ সাল নাগাদ আফগানিস্তানে ফলপ্রসূ সশস্ত্র বাহিনী গড়ে তোলা সম্ভব হবে, যা স্বতন্ত্রভাবে দেশে নিরাপত্তা বজায় রাখতে পারবে.