0রাশিয়া ও চীন সিরিয়া সম্পর্কে নিজেদের স্থিতির দ্বারা তথাকথিত আসদ শাসন-কে সমর্থন করছে না, সমর্থন করছে অঞ্চলে স্থিতিশীলতার. এ সম্বন্ধে সিরিয়ার রাষ্ট্রপতি বাশার আসদ বলেছেন “রস্সিয়া ২৪” টেলি-চ্যানেলকে প্রদত্ত ইন্টারভিউতে. তাঁর কথায়, এমন সমর্থন যদি না থাকে, তাহলে দেশে তথা গোটা অঞ্চলে অরাজকতা বিরাজ করবে. জানা আছে যে, রাশিয়া ও চীন সিরিয়ার ব্যাপারে বিদেশী বল-প্রয়োগের বিরুদ্ধে এবং সিরিয়ার আভ্যন্তরীন সঙ্কট মীমাংসার জন্য তার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা ব্যবহারের বিরুদ্ধে একনিষ্ঠভাবে মত প্রকাশ করে আসছে. মস্কো ও বেজিং সিরিয়ায় শান্তিপূর্ণ মীমাংসা সম্পর্কে রাষ্ট্রসঙ্ঘ ও আরব রাষ্ট্র লীগের বিশেষ প্রতিনিধি কোফি আননের উদ্যোগ সমর্থন করেছে, বিশেষ করে, যা অনুযায়ী, দেশে অগ্নি সংবরণের জন্য দায়িত্ব আরোপিত হচ্ছে যেমন সরকারের উপর, তেমনই তথাকথিত “সশস্ত্র বিরোধীপক্ষের” সমর্থকদের উপর. সিরিয়ায় এক বছরের উপর সরকারবিরোধী প্রতিবাদ আন্দোলন চলছে. প্রতিদিন খবর আসছে লোকেদের মারা যাওয়ার – যেমন শান্তিপূর্ণ নাগরিকদের তেমনই সৈন্যবাহিনী ও পুলিশের কর্মীদের. রাষ্ট্রসঙ্ঘের তথ্য অনুযায়ী, নিহতদের মোট সংখ্যা ৯ হাজার ছাড়িয়ে গেছে. সিরিয়ার কর্তৃপক্ষ ঘোষণা করছে যে, সশস্ত্র বিরোধীপক্ষের সাথে সঙ্ঘর্ষে সিরিয়ার সামরিক কর্মী এবং শৃঙ্খলা রক্ষা বিভাগের আড়াই হাজারেরও বেশি কর্মী নিহত হয়েছে, যাদের বিরুদ্ধে তত্পর রয়েছে অস্ত্রে সুসজ্জিত জঙ্গীরা, আর শান্তিপূর্ণ অধিবাসীদের মাঝে নিহতদের সংখ্যা ৩.২ হাজার ছাড়িয়ে গেছে.