জর্ডানে এ সপ্তাহে শুরু হওয়া “ধৈর্যহীন সিংহ” নামে বড় পরিসরের সামরিক মহড়া, যাতে অংশগ্রহণ করছে ১৯টি দেশের সামরিক কর্মী, কোনোভাবেই সিরিয়ার ঘটনাবলির সাথে সম্পর্কিত নয়. এ সম্বন্ধে জর্ডানের বাহিনীর অধিনায়কমন্ডলীর উদ্ধৃতি দিয়ে জানিয়েছে “এলাফ” ইন্টারনেট-পোর্টাল. এ খবরে জোর দিয়ে বলা হয়েছে যে, সিরিয়ার সাথে সাধারণ সীমানা থাকা জর্ডান প্রতিবেশী রাষ্ট্রের সার্বভৌমত্ব শ্রদ্ধা করে.জর্ডানে এ মহড়ায় অংশগ্রহণ করছে ৯টি আরব দেশের – জর্ডান, সৌদি আরব, কাতার, সংযুক্ত আরব এমীরতন্ত্র, বাহরেন, ইরাক, কুয়েত, মিশর ও লেবাননের সামরিক কর্মী. তাছাড়া মহড়ায় অংশগ্রহণ করছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ইংল্যান্ড, ফ্রান্স, অস্ট্রেলিয়া, ইতালি, স্পেন, রুমানিয়া, পাকিস্তান, ব্রুনেই ও ইউক্রেনের সামরিক কর্মীরা. দু সপ্তাহব্যাপী এ মহড়ায় অংশগ্রহণ  করছে বিভিন্ন ধরণের বাহিনীর মোট ১২ হাজার সৈনিক. মহড়ার উদ্দেশ্য হল অভিজ্ঞতা বিনিময় এবং সমরবিদ্যার সর্বশেষ সব সাফল্যের সাথে পরিচিত হওয়া, যোগাযোগ সুদৃঢ় করা এবং বিভিন্ন দেশের সামরিক কর্মীদের পারস্পরিক ক্রিয়াকলাপের সঙ্গতি সাধনের মান উন্নত করা.