লেবাননের সশস্ত্র বাহিনী গত রবিবার সন্ধ্যায় দেশের উত্তরাঞ্চলে ত্রিপোলি শহরে শৃঙ্খলা পুনর্স্থাপন করেছে, যেখানে সুন্নী মুসলমান এবং আলাউইটদের (শিয়া ইসলামের শাখা) মাঝে কঠোর লড়াই হয়েছিল. স্থানীয় প্রচার মাধ্যমের তথ্য অনুযায়ী, বিশৃঙ্খলার সময় অন্ততপক্ষে চার জন নিহত হয়েছে এবং আরও কিছু লোক আহত হয়েছে. সৈনিকরা শহরে নিজেদের উপস্থিতি বাড়িয়েছে, টহল এবং প্রহরা চৌকির সংখ্যাও বাড়িয়েছে. ত্রিপোলি শহরে লড়াই শুরু হয় শনিবার সন্ধ্যায়. অনুমান করা হচ্ছে যে, হিংসাত্মক ক্রিয়াকলাপের কারণ ছিল কর্তৃপক্ষের দ্বারা সুন্নী শাদি মাওলাউই-কে গ্রেপ্তার. প্রতিবেশী সিরিয়ায় তত্পর “সন্ত্রাসবাদী দলে” অন্তর্ভুক্ত থাকার সন্দেহে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়. মাওলাউি-র সমর্থনে ইস্লামপন্থীদের মিছিলের পরে লড়াই শুরু হয় এবং তাতে সঙ্ঘর্ষরত পক্ষগুলি ব্যবহার করে গ্রেনেড-থ্রোয়ার এবং অটোমেটিক রাইফেল. লেবাননে আভ্যন্তরীন রাজনৈতিক বিরোধিতা সিরিয়ার ঘটনাবলির পটভূমিতে তীব্র হয়ে ওঠে. লেবাননের ত্রিপোলি শহরে বহু সুন্নী মুসলমান সিরিয়ায় সরকারবিরোধী আন্দোলন দামাস্কাসের দ্বারা দমনে বিক্ষুব্ধ. অন্যদিকে, লেবাননের আলাউইটরা রাষ্ট্রপতি বাশার আসদ-কে সমর্থন করে. বিগত দু সপ্তাহে লেবাননের সীমান্ত-রক্ষীরা দুবার চোরা-চালান করা অস্ত্রের বড় ক্ষেপ বজেয়াপ্ত করেছে, যা সিরিয়ার সরকারবিরোধী শক্তির জন্য পাঠানো হয়েছিল.