জাতীয় মুক্তি আর পরিবর্তন ফ্রন্টের নেতা কাদ্রি জামিল নতুন সাংসদিয় নির্বাচন অনুষ্ঠান করার দাবি করেছেন, ইতার-তাসস জানিয়েছে.

তাঁর ভাষায়, বিরোধী দল নিশ্চিত যে, “নির্বাচন ব্যবস্থা যার ভিত্তিতে ৭ই মে ভোট করা হয়েছে খুঁতেল”. রাজনীতিজ্ঞ মনে করছেন যে, অবস্থাটা পরিবর্তিত হতে পারে, যদি যথার্থ আইন গ্রগণ করা হয় আর নতুন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়.  

জাতীয় মুক্তি আর পরিবর্তন ফ্রন্টের ছাড়া আর কোনো বিরোধী দল নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে নি.