আফগানিস্তানের থেকে সাময়িক ভাবে দায়ভার প্রাপ্ত ব্যক্তিকে তেহরানের পররাষ্ট্র দপ্তরে ডেকে পাঠানো হয়েছিল, সেখানে তাঁর কাছে কাবুলের ইরানের রষ্ট্র দূতাবাসে আক্রমণের বিষয়ে প্রতিবাদ জানানো হয়েছে. ইরানের টেলিভিশন চ্যানেল প্রেস- টিভি জানিয়েছে যে, এই ধরনের কাজ করা হয়েছে কারণ কিছু আফগানিস্তানের সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে যে, আফগানিস্তানের বেশ কিছু পার্লামেন্ট সদস্যের কাছে কাবুলের ইরানের রাষ্ট্রদূত আবুলফাজি জখরেবন্দ নাকি চেষ্টা করেছিলেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও আফগানিস্তানের মধ্যে স্বাক্ষরিত চুক্তিকে গ্রহণ না করার বিষয়ে বোঝানোর. ইরানের পররাষ্ট্র দপ্তরের প্রতিনিধি আফগানিস্তানের পক্ষ থেকে সাময়িক ভাবে দায়ভার প্রাপ্ত ব্যক্তিকে নিজেদের উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেছেন যে, এই চুক্তির ফলে এই এলাকায় ২০২৪ সাল অবধি মার্কিন সামরিক উপস্থিতি বজায় থাকবে. একই সময়ে তিনি বলেছেন যে, এই ধরনের তেহরানকে নিন্দা করার জন্য অপপ্রচার আফগানিস্তানের সংবাদ মাধ্যমে করা হচ্ছে বেশ কিছু দেশের স্বার্থের কথা মাথায় রেখে, যারা ইরান ও আফগানিস্তানের মিত্র সুলভ সম্পর্ক নষ্ট করে দিতে চায়. ইরানের পররাষ্ট্র দপ্তরের প্রতিনিধি আশা প্রকাশ করেছেন যে, আফগানিস্তানের সরকার ব্যবস্থা নেবেন এই ধরনের ইরানের রাষ্ট্র দূতাবাসের উপরে হামলা সামলানোর জন্য.