ভারতের কলকাতা শহরের সফরে পৌঁছে এই বক্তব্য প্রকাশ করেছেন হিলারি ক্লিন্টন. তাঁর কথামতো, পাকিস্তান ভারত ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একাধিক দাবী স্বত্ত্বেও এই বিষয়ে কিছুই করে নি. ভারত পক্ষ থেকে হাফিজকে এখনও গ্রেপ্তার করা হয় নি বলে ভর্ত্সনা করা হয়েছে, কারণ হাফিজের বিরুদ্ধে বহু প্রমাণ ভারত পাকিস্তানের হাতে তুলে দিয়েছিল. তার মধ্যে একমাত্র জীবিত সন্ত্রাসবাদীর স্বীকারোক্তি যে, হাফিজ সঈদ ব্যক্তিগত ভাবে এই হামলার উপযুক্ত লোক বাছাইয়ের কাজ করেছিল.

0    ২০০৮ সালের নভেম্বর মাসে দশ জনের একটি সন্ত্রাসবাদী দল ভারতের বাণিজ্য রাজধানীতে হামলা করেছিল, তাদের কাছে ছিল স্বয়ংক্রিয় অস্ত্র, গ্রেনেড ইত্যাদি. তারা স্টেশনে, হোটেলে, রাস্তায় ধর্মীয় কেন্দ্রের লোক জনকে নির্বিচারে হত্যা করে দুটি হোটেল দখল করেছিল. দুই দিনেরও বেশী সময় ধরে বিশেষ পুলিশ বাহিনীকে তাদের সঙ্গে লড়তে হয়েছিল, দখল থেকে উদ্ধারের জন্য. ফলে ১৬৬ জনের মৃত্যু হয়েছিল, তিনশ জনেরও বেশী আহত হয়েছিলেন.