সুদান গত শুক্রবার দক্ষিণ সুদানের বিরুদ্ধে সামরিক ক্রিয়াকলাপ চালিয়ে যাওয়ার অভিযোগ তুলেছে এবং সুদানের ভূভাগে থাকা দক্ষিণ সুদানের বাহিনীর বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাওয়ার অভিপ্রায়ের কথা ঘোষণা করেছে, জানিয়েছে ফ্রান্স প্রেস সংবাদ এজেন্সি. খার্তুম ঘোষণা করেছে যে, দক্ষিণ সুদান সামরিক ক্রিয়াকলাপ বন্ধ করে নি, কারণ তা চালিয়ে যাচ্ছে. আবার দক্ষিণ সুদানের সৈন্যবাহিনীতে বলা হয়েছে যে, শুক্রবার বোমাবর্ষণ অথবা সঙ্ঘর্ষের কোনো খবর আসে নি এবং সীমান্তে পরিস্থিতি শান্ত বলে অভিহিত করা হয়েছে. রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদ গত বুধবার এক সিদ্ধান্ত অনুমোদন করেছে, যাতে সুদান ও দক্ষিণ সুদানের কাছে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে সামরিক ক্রিয়াকলাপ বন্ধ করার দাবি করা হয়েছে. তাছাড়া, সিদ্ধান্তে বলা হয়েছে যে, তিন মাসের মধ্যে সমস্ত বিতর্কমূলক প্রশ্ন মীমাংসা করা উচিত্. দক্ষিণ সুদান ১০ই এপ্রিল সৈন্য পাঠায় সীমান্তবর্তী কর্দোফান প্রদেশে, যেখানে “হেগলিগ” খনি অবস্থিত, তারপরে খার্তুম দক্ষিণ সুদানের সাথে আলাপ-আলোচনা থেকে উত্তরের বেরিয়ে আসার কথা ঘোষণা করে এবং দক্ষিণ সুদানের বিরুদ্ধে “আগ্রাসনের” অভিযোগ তোলে. পরে সুদানের সৈন্যবাহিনী দক্ষিণের প্রতিবেশীকে নিজের ভূভাগ থেকে সরিয়ে দিতে স৭ম হয়.