মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোসঙ্ঘ, দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপান রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদে উত্তর কোরিয়ার সে সব সংস্থার তালিকা পাঠিয়েছে, যাদের বিরুদ্ধে এপ্রিলে পিয়ং ইয়ংয়ের দ্বারা স্পুতনিক সহ রকেট ক্ষেপণ উপলক্ষে নিষেধাজ্ঞা প্রবর্তন করা উচিত্. “রয়টার” সংবাদ এজেন্সির তথ্য অনুযায়ী, এ “কালো তালিকায়” উত্তর কোরিয়ার প্রায় ৪০টি সংস্থার নাম রয়েছে. স্পুতনিক “কোয়ানমিয়োনসন-৩” সহ বাহক রকেট “ঈনখা-৩” ক্ষেপণ করা হয়েছিল ১৩ই এপ্রিল, তবে তা সফল হয় নি. কালো তালিকার অন্তর্ভুক্ত হওয়ার অর্থ হবে বিদেশী ব্যাঙ্কে এ সব সংস্থার সঙ্গতি অচলাবস্থায় রাখা. বর্তমানে নিষেধাজ্ঞা বলবত্ রয়েছে উত্তর কোরিয়ার আটটি সংস্থা এবং পাঁচ জন নাগরিকের বিরুদ্ধে. তাছাড়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, নিরাপত্তা পরিষদে অন্তর্ভুক্ত দেশগুলি, জাপান এবং দক্ষিণ কোরিয়া সে সব পণ্যের তালিকা প্রসার করার প্রস্তাব করেছে, উত্তর কোরিয়ায় যার আমদানি নিষিদ্ধ. উত্তর কোরিয়া নিজের মহাকাশ কর্মসূচির শান্তিপূর্ণ চরিত্রের উপর জোর দিচ্ছে. প্রসঙ্গত, বহু দেশ বিগত ক্ষেপণকে পারমাণবিক ওয়ারহেড বহনে সক্ষম ব্যালিস্টিক রকেটের আড়াল করা পরীক্ষা বলে মনে করে.