পাকিস্তানের সর্বোচ্চ আদালত বৃহস্পতিবার দেশের প্রধানমন্ত্রী ইউসুফ রজা গিলানী-কে বিধানিক মান লঙ্ঘনে দোষী স্বীকার করেছে, জানিয়েছে স্থানীয় প্রচার মাধ্যম. গোড়া থেকেই তাঁর ছয় মাসের জেল হওয়ার ভয় ছিল. কিন্তু এ ক্ষেত্রে আদালতে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় যে, প্রতীকী শাস্তিই যথেষ্ট হবে. গিলানী-কে জানানো হয় যে, তাঁকে গ্রেপ্তার করে রাখা হবে রায় শোনানোর প্রক্রিয়া শেষ হওয়া পর্যন্ত. তার পরে প্রধানমন্ত্রীকে মুক্ত করা হয় এবং তিনি আদালত কক্ষ ত্যাগ করেন. আদালতের এমন রায়ের পরে প্রধানমন্ত্রীর পদে তাঁর থাকার অধিকার আছে কি না এখনও স্পষ্ট নয়, উল্লেখ করেছে প্রচার মাধ্যম. প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলা হয় পাকিস্তানের বর্তমান রাষ্ট্রপতি আসিফ আলি জারদারীর বিরুদ্ধে, যাঁকে দূর্নীতিপরায়ণতায় জড়িত থাকায় সন্দেহ করা হচ্ছে, পুরোনো ফৌজদারী মামলা পুনরারম্ভ করতে অস্বীকার করার.