0ইউরোসঙ্ঘ সিরিয়ার বিরুদ্ধে পরবর্তী, চতুর্দশ সারির নিষেধাজ্ঞা প্রবর্তন করেছে. এ সিদ্ধান্ত  একমতে গৃহীত হয়েছে লাক্সেমবার্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের পর্যায়ে ইউরোসঙ্ঘের পরিষদের সোমবারের বৈঠকে, জানিয়েছে “ইতার-তাস” সংবাদ এজেন্সি. নতুন সারির নিষেধাজ্ঞায় আছে সিরিয়ায় বিলাসের উপকরণের সরবরাহ এবং দুই উদ্দেশ্য ব্যবহারযোগ্য প্রযুক্তির রপ্তানী, যা আভ্যন্তরীন দমনের জন্য ব্যবহৃত হতে পারে. সিরিয়ায় অস্ত্র এবং পুলিশী প্রযুক্তি সরবরাহের ব্যাপারে ইউরোসঙ্ঘের নিষেধাজ্ঞা এক বছরের উপর বলবত্ আছে. এই প্রথম নিষেধাজ্ঞার সারিতে “কালো তালিকার” সম্প্রসারণ নেই, যা অনুযায়ী, তালিকাভুক্ত ব্যক্তিদের ইউরোপে যাওয়া নিষিদ্ধ. রাশিয়া মনে করে দামাস্কাসের বিরুদ্ধে একতরফা নিষেধাজ্ঞা প্রবর্তন অ-ফলপ্রসূ এবং আন্তর্জাতিক বিধানের দৃষ্টিভঙ্গী থেকে অগ্রহণীয়. ইউরোসঙ্ঘ এর আগে এ দেশের বিরুদ্ধে ১৩ সারি নিষেধাজ্ঞা প্রবর্তন করেছে. সিরিয়ার জন্য ইউরোসঙ্ঘের “কালো তালিকায়” আছে ১২৬ জনের নাম, সেই সঙ্গে রাষ্ট্রপতি বাশার আসদ এবং তাঁর পরিবারের সদস্যরা, সিরিয়ার আমলা এবং ব্যবসায়ীরা. তাঁদের সকলের জন্য ইউরোপ যাত্রা নিষিদ্ধ, এবং তাঁদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট অচলাবস্থায় রাখা আছে. তাছাড়া ইউরোপীয় ব্যবসাকে নিষেধ করা হয়েছে সিরিয়ার শাসনের ঘনিষ্ঠ ৪০টিরও বেশি সংস্থার সাথে যোগাযোগ রাখতে, সেই সঙ্গে সিরিয়ার জাতীয় বিমান কোম্পানি, কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক এবং একসারি রপ্তানি কোম্পানির সাথে.