দক্ষিণ কোরিয়ার কর্তৃপক্ষ মনে করে যে, উত্তর কোরিয়া পারমাণবিক পরীক্ষা চালাতে চায়, সম্ভবত তা ঘটবে আগামী দু সপ্তাহের মধ্যে, জানিয়েছে “চোসোন ইলবো” পত্রিকা. দক্ষিণ কোরিয়ার কর্তৃপক্ষের তথ্য অনুযায়ী, স্পুতনিক থেকে প্রাপ্ত ফোটোতে দেখা যাচ্ছে যে, উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক পরীক্ষা কেন্দ্রে, যেখানে প্রথম দুটি পারমাণবিক পরীক্ষা চালানো হয়েছিল, নতুন টানেল তৈরি করা হয়েছে. খুবই উচ্চ সম্ভাবনা আছে যে, পারমাণবিক সাজ-সরঞ্জাম ইতিমধ্যেই টানেলে রয়েছে এবং টানেল বন্ধ করে রাখা হয়েছে, সরকারের উত্স পত্রিকাকে জানিয়েছেন. ১৩ই এপ্রিল উত্তর কোরিয়া আবহ স্পুতনিক সহ রকেট ক্ষেপণ করেছে. গত সপ্তাহে রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদ এ রকেট ক্ষেপণের নিন্দে করেছে, কারণ তা নিরাপত্তা পরিষদের সিদ্ধান্ত লঙ্ঘন করে. একসারি দেশ এ উদ্বেগ প্রকাশ করেছে যে, বিশ্ব জনসমাজের দ্বারা রকেট ক্ষেপণের নিন্দার উত্তরে উত্তর কোরিয়া আরও প্ররোচনামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারে, যেমন হয়েছিল ২০০৯ সালে. তখন উত্তর কোরিয়া দ্বিতীয় পারমাণবিক বিস্ফোরণ ঘটিয়েছিল.