উচ্চস্তরের কূটনৈতিক সূত্রের মাধ্যমে জানা গেছে, যে ১লা জুলাই থেকে ইরানের কাছ থেকে খনিজ তেল আমদানীর উপর যে নিষেধাজ্ঞা জারী করা হয়েছিল, তা সামনের মাসের শেষ পর্যন্ত মুলতুবী রাখা হয়েছে. তার কথায়, ইতালি ও গ্রীস ছিল এই ব্যাপারে নাছোড়বাঁধা, কারণ তাদের মতে, ইরান থেকে খনিজ তেল আমদানীর ওপর নিষেধাজ্ঞা জারী করা হলে, জ্বালানীর খাতে খরচা তাদের যথেষ্টমাত্রায় বেড়ে যাবে. প্রথম থেকে ধরা হয়েছিল, যে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করার ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গৃহীত হবে আজ লুক্সেমবার্গে ইউরোপীয় সংঘের সদস্য দেশগুলির পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠকে. ইরানের রপ্তানী করা খনিজ তেলের ২০% কেনে ইউরোপ. প্রধান আমদানীকারীরা হল ইতালি, গ্রীস ও স্পেন.