বর্তমানে মিশরের শাসনক্ষমতায় আসীন থাকা সর্বোচ্চ সামরিক পরিষদ নতুন নির্বাচিত রাষ্ট্রপতির হাতে শাসনভার হস্তান্তরিত করতে প্রস্তুত, যদি সেই সময়ের মধ্যে নতুন সংবিধান প্রস্তুত না হয়, তবুও. গতকাল মিশরের সর্বোচ্চ সামরিক পরিষদের অন্যতম সদস্য মামদুহ শাহিন এই কথা জানিয়েছেন. তার কথায়, সামরিক পরিষদ সংবিধান প্রণেতাদের কাজে হস্তক্ষেপ করতে অথবা প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করতে চায় না. আশা করা হচ্ছে, যে সংবিধান প্রণয়ন করতে ৬ মাসের বেশি সময় লাগবে না. সংবিধান প্রণয়নের কাজ শুরু হয়েছে মার্চের শুরুতে. তারপরে তথাকথিত বৈপ্লবিক সংবিধানের ব্যাপারে দেশে গণভোটের আয়োজন করা হবে, তবে তার সময়সীমা এখনো নির্দ্ধারিত হয়নি.