ব্রিক্সের শীর্ষ সম্মেলন সারা বিশ্বের মাপে পরিণত হয়েছে, এবং এই সংগঠনের পত্তণ হওয়ার পরে সামান্য সময়ের মধ্যেই ব্রিক্স সবার জন্য উদাহরনস্বরূপ হয়ে দাঁড়িয়েছে. আজ নয়াদিল্লীতে অধিবেষনের শেষে এই মন্তব্য করেছেন রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ. পাঁচটি দেশ আলোচনা করেছে বিশ্বের আর্থিক ব্যবস্থার সংস্কার সাধনের ব্যাপারে, জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে ব্রিক্সের সদস্য দেশগুলির প্রভাব বাড়ানোর বিষয়ে এবং আন্তঃরাষ্ট্রীয় সহযোগিতা বৃদ্ধির নতুন পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে.

     নয়াদিল্লীতে শীর্ষ সম্মেলনের শেষে তার ফলাফল সম্পর্কে মন্তব্য করতে গিয়ে দমিত্রি মেদভেদেভ বলেছেন, যে তিনি অগ্রগতির মাত্রায় সন্তুষ্ট, বিশেষতঃ, যদি মাথায় রাখা হয়, যে এই সম্মেলন সবেমাত্র চতুর্থবার অনুষ্ঠিত হল. রাশিয়ার রাষ্ট্রনেতা আরও বলেছেন, যে এরকম উদাহরনমুলক অগ্রগতির গ্যারান্টি – ব্রিক্সের সদস্য দেশগুলির সংঘবদ্ধ স্ট্র্যাটেজিক লক্ষ্য. ---

     আমার পক্ষে বিশেষ করে উল্লেখ করতে ভালো লাগছে, যে রাশিয়া ছিল এরকম সংগঠন গড়ার অন্যতম উদ্যোক্তা. রাশিয়ার একাতেরিনবার্গে তিন বছর আগে প্রথম সম্মেলন অনুষ্ঠিত হওয়ার পরে, এই সময়ের মধ্যে ব্রিক্স নিজেকে প্রভাবশালী আন্তর্জাতিক সংগঠন হিসাবে নিজেকে প্রতিপন্ন করতে সমর্থ হয়েছে. এই স্বল্পকালীন ইতিহাসে আমাদের সংগঠন যে পথ অতিক্রম করেছে, তা মুগ্ধ করে. ব্রিক্সের সত্যিকারের ক্ষমতা নিহিত আছে সব সদস্য রাষ্ট্রের যেমন অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে, তেমনই রাজনৈতিক ক্ষেত্রে মূল মতাদর্শের মিলের মধ্যে. ব্রিক্সের ভাবী কর্মসূচী হল – ক্রমশঃ একে ক্ষমতাবান ও প্রভাবশালী সংগঠনে পরিণত করা.

   শীর্ষ সম্মেলনে মুখ্য আলোচ্য বিষয় ছিল অর্থনৈতিক প্রশ্নাবলী. মেদভেদেভ বলেছেন, যে ব্রিক্সের সদস্য দেশগুলি ভবিষ্যতেও বিশ্ব অর্থনীতিকে স্থিতিশীল করার ব্যাপারে ও তার নিয়মিত উন্নয়নের ক্ষেত্রে সর্বতোভাবে সাহায্য করবে. সেজন্য প্রয়োজন আন্তর্জাতিক আর্র্থিক ব্যবস্থার সংস্কার সাধন, সবার আগে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের. আপাততঃ এই সব প্রশ্নের সমাধান করা হয় মুলতঃ শীর্ষ-২০ দেশের আওতায়. সেইজন্যেই ব্রিক্সের অন্তর্ভূক্ত দেশগুলির উচিত শীর্ষ-২০র সফল কর্মকান্ডে নিজেদের ক্ষমতা কাজে লাগানো. ---

  আন্তর্জাতিক আর্থ-মুদ্রা ব্যবস্থা সংস্কার করার বিষয়ে আমরা ঐক্যমতে পৌঁছেছি. তবে সমস্যা এখানেই শেষ হয়ে যাচ্ছে না. আমরা বিষয়গতভাবে বিশ্ব অর্থনীতির অবস্থা বিশ্লেষণ করেছি, এবং ঠিক করেছি, যে আগামী সময়ে আমরা এই অভিমুখে আমাদের কার্যকলাপের সমন্বয় ঘটিয়ে যাব, এমনকি শীর্ষ-২০র আওতায় বিশেষ করে.

      ব্রিক্সের অভ্যন্তরে যোগাযোগের স্ট্র্যাটেজিক বিকাশের বিষয়ে দমিত্রি মেদভেদেভ বলেছেন, যে এখন ফলপ্রসূ কাজকর্ম চলছে. এখানে যেমন আন্তঃরাষ্ট্রীয় সহযোগিতা চলছে, তেমনই বহু বাণিজ্যিক ও বৈজ্ঞানিক প্রকল্পও কাজ করতে শুরু করেছে. রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি সবশেষে বলেছেন, যে বিগত সম্মেলনে ব্রিক্সের নতুন নতুন কর্মকান্ডের বুনিয়াদ গড়া হয়েছে.