0লেবাননে আন্তঃআরব টেলি-চ্যানেল “আল-জাজিরার” প্রাক্তন সাংবাদিক আলি হাশেম বলেছেন যে, সিরিয়ার পরিস্থিতি সম্পর্কে নেতৃবৃন্দের স্থিতির সাথে একমত না হওয়ার জন্য তিনি টেলি-চ্যানেল ছেড়ে দিয়েছেন. তিনি “রস্সিয়া ২৪” টেলি-চ্যানেলকে প্রদত্ত ইন্টারভিউতে বলেন যে, তিনি নিজে দেখেছেন কিভাবে বেশ কিছু সশস্ত্র ব্যক্তি সিরিয়ার সীমানা অতিক্রম করেছে, বাশার আসদের সরকারের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য. আলি হাশেম বলেন যে, গোড়া থেকেই কর্তৃপক্ষের বিরোধিতা করছিল সশস্ত্র দল. এ সপ্তাহে আল-জাজিরা টেলি-চ্যানেল ছেড়ে গেছে আরো তিনজন সাংবাদিক, সেই সঙ্গে বেইরুটে টেলি-চ্যানেলের দপ্তরের ম্যানেজিং ডিরেক্টর হাসান শাআবান. শাআবানের কথায়, আল-জাজিরা গোড়া থেকেই সিরিয়া সম্পর্কে পক্ষপাতপূর্ণ, তাঁর ভাষায়, প্ররোচনামূলক স্থিতি গ্রহণ করে. সিরিয়ায় এক বছর ধরে ক্রমাগত সরকারবিরোধী প্রতিবাদ আন্দোলন চলছে, যা বিগত কয়েক মাসে রূপান্তরিত হয়েছে কঠোর সশস্ত্র সঙ্ঘর্ষে. সিরিয়ার সংবাদ এজেন্সি "সানা" এর প্রাক্কালে দেশের তথ্য মন্ত্রণালয়ের এক উত্সকে উদ্ধৃত করে জানিয়েছে যে, সন্ত্রাসবাদী দলগুলি শান্তিপূর্ণ অধিবাসীদের বিশেষ করে অপহরণ করছে এবং তাদের হত্যা করছে, যাদের পরে সিরিয়ার সৈন্যবাহিনীর শিকার বলে প্রতিপন্ন করছে. সেই উত্স উল্লেখ করেছেন যে, আরবী স্পুতনিক-টেলি-চ্যানেল “আল-জাজিরা” এবং “আল-আরাবিয়া” সম্প্রতিকালে সন্ত্রাসবাদীদের দ্বারা নিয়ন্ত্রিত এলাকায় জঙ্গীদের নিজেদের "সাংবাদিক" হিসেবে ব্যবহার করছে.