রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সম্পাদক বান কি মুন গত বৃহস্পতিবার বলেছেন যে, এক বছর আগে শুরু হওয়া সিরিয়ায় সঙ্ঘর্ষেনিহতদের সংখ্যা ৮ হাজার ছাড়িয়ে গেছে. নিজের বিবৃতিতে বান কি মুন আরও উল্লেখ করেন যে, সিরিয়ার কর্তৃপক্ষের দ্বারা বিরোধী শক্তির দমন এখনও পর্যন্ত চলছে, জানিয়েছে “অ্যাসোশিয়েটেড প্রেস” সংবাদ এজেন্সি. তাছাড়া, বান কি মুন সঙ্ঘর্ষের উভয় পক্ষকে আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রসঙ্ঘ ও আরব রাষ্ট্র লীগের বিশেষ প্রতিনিধি কোফি আননের সাথে সহযোগিতা করার, যাতে আরও রক্তক্ষয় নিবারণ করা যায়. সিরিয়ায় মানব অধিকার রক্ষকরা ঘোষণা করেছে যে, সিরিয়ায় সঙ্কটের সিকার হয়েছে ৯ হাজারেরও বেশি লোক. সিরিয়ার কর্তৃপক্ষের কথায়, সরকারী বাহিনী দেশে লড়াই করছে চরমপন্থী দলগুলির সাথে, যারা বিদেশ থেকে সমর্থন ও অস্ত্র পাচ্ছে. সিরিয়ার কর্তৃপক্ষ ঘোষণা করেছে যে, সঙ্ঘর্ষে নিহত হয়েছে সিরিয়ার ২ হাজারেরও বেশি সামরিক কর্মচারী এবং শৃঙ্খলা রক্ষা বিভাগের কর্মী. আশা করা হচ্ছে যে, শুক্রবার রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদে সিরিয়ার পরিস্থিতি সম্বন্ধে রিপোর্ট দেবেন রাষ্ট্রসঙ্ঘ ও আরব রাষ্ট্র লীগের বিশেষ প্রতিনিধি কোফি আনন. নিজের তরফ থেকে ইউরোসঙ্ঘের বৈদেশিক ব্যাপার এবং নিরাপত্তার নীতি সংক্রান্ত হাই-কমিশনার ক্যাথ্রিন অ্যাশটন সিরিয়া সঙ্কটের বার্ষিকীর কথা উল্লেখ করে সরকারী বাহিনীর দ্বারা শহরের পাড়াগুলিতে গুলি বর্ষণের নিন্দে করেন. বৃহস্পতিবার ব্রাসেলসে প্রচারিত বিবৃতিতে তিনি এ সময়ে সিরিয়ায় সাধিত মানবজাতির বিরুদ্ধে অপরাধের স্বাধীন আন্তর্জাতিক তদন্তের দাবি করেছেন.