এই ধরনের পদার্থ উচ্চ প্রযুক্তি বিষয়ক কাজকর্মের ক্ষেত্রে প্রয়োজন হয়. ইউরোপীয় সঙ্ঘের মতে বেজিং রপ্তানী কোটা আরোপ করেছে যাতে এই ধরনের জিনিসের দাম বাড়ে ও সেই ভাবে বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থায় নিজেদের দায়িত্ব খণ্ডন করেছে. ইউরোপীয় সঙ্ঘ দাবী করেছে যে, গণ প্রজাতন্ত্রী চিনের উচিত্ নিজেদের সহকর্মী দের সঙ্গে এই পরিস্থিতির সমাধানে আলোচনা করা. যদি এই ধরনের ব্যবস্থা ফলপ্রসূ না হয়, বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থা তাহলে স্বাধীন তদন্ত করবে. চিন ইউরোপীয় সঙ্ঘ, জাপান ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান নিয়ে নিজেদের সমবেদনা প্রকাশ করেছে ও ব্যাখ্যা করেছে যে, তারা এই কাজ করেছে শুধু পরিবেশ সংরক্ষণের কথা মাথায় রেখে.