অজানা নামের এক দল হ্যাকার এই খবর রটিয়েছে, তারা নাকি কিছু ই-মেইল দেখতে পেয়েছে, যা ৭৮ জন বাশার আসাদের দলের লোক ইরানের কাছে পাঠিয়েছে, খবর দিয়েছে ফরাসী সংবাদ সংস্থা ফিগারো. গত বছরের ডিসেম্বরে এই সব চিঠি পাঠানো হয়েছে দামাস্কাসের শোচনীয় আর্থিক অবস্থার উল্লেখ করে. হ্যাকার দল জানিয়েছে যে, ইরান নাকি একশ কোটি ডলারেরও বেশী দিতে সম্মত হয়েছে সিরিয়ার প্রশাসনকে, যারা দেশে বিশৃঙ্খলার কারণে সরকারি কর্মচারীদের বেতন ও নিরাপত্তা রক্ষী দের বেতনও দিতে অপারগ হয়েছে.

এক গোপন আলোচনায় ইরানের তরফ থেকে সিরিয়াকে শুধু আর্থিক সাহায্যই নয়, নিষেধাজ্ঞার বেড়াজাল এড়ানোর কথাও বলা হয়েছে. অংশতঃ তেহরান থেকে সিরিয়ার খনিজ তেল কিনে তা তৃতীয় দেশে বিক্রয়ের বন্দোবস্তও করা হয়েছে. তাছাড়া তেহরান থেকে সিরিয়াকে তাদের দেশের বিমানবন্দর ব্যবহার করে রপ্তানী যোগ্য মাল পাঠানোর সুযোগ দেওয়া হয়েছে. শেষমেষ ইরান সিরিয়াকে আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞা এড়িয়ে কি করে আর্থিক লেনদেন করা যায় তাও শেখাচ্ছে, বলে হ্যাকার দল তাদের পাওয়া দলিল থেকে জেনেছে বলে জানিয়েছে.