0প্রথম “সিরিয়া মিত্রদের” বৈঠক, যেখানে এক সারি আরব ও ইউরোপীয় দেশ অংশ নেবে, তা হতে চলেছে ২৪শে ফেব্রুয়ারী টিউনিশিয়া দেশে. এই ধরনের সিদ্ধান্ত রবিবার নেওয়া হয়েছে মিশরের কায়রো শহরে পারস্য উপসাগরীয় দেশ গুলির পররাষ্ট্র মন্ত্রীদের সিরিয়া নিয়ে আয়োজিত বৈঠকে. “সিরিয়া মিত্র” গোষ্ঠী তৈরী হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও তাদের পোষ্য পারস্য উপসাগরীয় দেশ গুলির উদ্যোগে এবং ইউরোপীয় সঙ্ঘের ন্যাটো জোটের দেশ গুলির সাহায্যে. এই ধারণার সমর্থনে বর্তমানে তৃতীয় বিশ্বের দিকে হাত পেতে থাকা দেশ গুলি এগিয়ে আসছে. এদের লক্ষ্য সিরিয়া রাষ্ট্রপতিকে উত্খাত করে ইরানের খনিজ তেল পাওয়ার পথ সহজ করা. রাশিয়ার পররাষ্ট্র দপ্তর এই “সিরিয়া মিত্র” সংগঠনকে আইন সঙ্গত বলে মনে করে না ও এই প্রসঙ্গে মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আলেকজান্ডার লুকাশেভিচ বলেছেন যে, মস্কো যে কোন ধরনের বিদেশী হস্তক্ষেপ, সিরিয়ার আভ্যন্তরীণ বিষয়ে করাকে মানবাধিকার লঙ্ঘণ বলেই মনে করে.