রাশিয়া ও ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট দিমিত্রি মেদভেদেভ এবং নিকোলাই সারকাজি সিরিয়া বিষয়ে নিজেদের মতামত বিনিময় করেছেন।দুই দেশের রাষ্ট্রপ্রধানদের মধ্যে গতকাল বুধবার এক টেলিফোন আলাপ অনুষ্ঠিত হয়।ক্রেমলিনের বার্তা বিভাগ জানায়,ফ্রান্সের উদ্যোগেই মেদভেদেভ ও সারকাজির মধ্যে টেলিফোন আলাপ অনুষ্ঠিত হয়।গত ৭ ফেব্রুয়ারী সিরিয়ার রাষ্ট্রপতি বাশার আসাদসহ দেশটির অন্যান্য নেতাদের সাথে রাশিয়ার প্রতিনিধিদের অনুষ্ঠিত বৈঠকের ফলাফল সম্পর্কে দিমিত্রি মেদভেদেভ তার ফরাসী সহকর্মীকে বর্ননা করেন।ওই সাক্ষাতে মস্কো ঘোষণা করে যে,সিরিয়া সংকট সমাধানে মস্কো মধ্যস্থতাকারীর ভূমিকা পালন করতে প্রস্তুত রয়েছে।রাশিয়ার নেতা সিরিয়ার সামগ্রিক সংকট নিরসনে সহযোগি রাষ্ট্রগুলো এবং জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদকে একপক্ষীয় মনোভাব পরিহার করার আহবান জানান।এদিকে এলিস প্রসাদের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা ফ্রান্স প্রেস জানায়,সারকাজি নিজের দেয়া মন্তব্যে মস্কোকে বলেন,ফ্রান্স আরব লীগের পরিকল্পনাকে পুরোপুরি সমর্থন করে,যেখানে আসাদকে তার রাষ্ট্রপতির পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর কথা বলা হয়েছে।সারকাজি আরও বলেন,‘রাশিয়া ও ফ্রান্সের মধ্যে মতামতের ভিন্নতা থাকলেও রাশিয়াকে অবশ্যই সিরিয়া সংক্রান্ত আরব লীগের কার্যক্রমকে সমর্থন করা উচিত যা বাশার আসাদকে পদত্যাগ করতে বাধ্য করবে এবং সিরিয়ায় গৃহযুদ্ধ কোন ভাবেই হতে দেয়া যাবে না।গৃহযুদ্ধ তা শুধমাত্র সিরিয়ার জন্যই হুমকি নয় বরং তা পুরো ঐ অঞ্চলের জন্যই অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরি করবে।

প্রসঙ্গত,সিরিয়ায় গত ১০ মাস ধরে সরকারবিরোধী আন্দোলন চলছে।প্রতিদিনই দেশটি থেকে সামরিক ও বেসামরিক লোক নিহত হওয়ার খবর আসছে।সিরিয়ায় নিষেধাজ্ঞা প্রস্তাবে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের এক ভোটাভুটি পর্ব গত ৪ ফ্রেবুয়ারী অনুষ্ঠিত হয়।এবারও  রাশিয়া ও চীন তাতে ভেটো দেয়।