রুশিরা ৪ ফেব্রুয়ারি আবারও একটি ধারাবাহিক রাজনৈতিক কর্মসূচি পালন করেছেন।রাশিয়ার দূরপ্রাচ্যের ভ্লাদিভাস্তক থেকে সর্বোচ্চ পশ্চিম প্রান্তের অধিকাংশ শহরে ক্ষমতাসীন সরকারের সমর্থক ও বিরোধীদলের সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।তবে,আগামী রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে পুতিনের সমর্থনে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক লোকজন উপস্থিত হন।শীতের এই মৌসুমে বাইরে মাইনাস ১৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপমাত্রা সত্বেও পুতিনের সমর্থনে আয়োজিত সমাবেশে ১ লাখ ২০ হাজার মানুষ জড়ো হয়েছেন।‘বিশৃঙ্খলা নয়,পুতিনকে-হ্যাঁ’,‘রাশিয়াকে বিভক্ত হতে দেব না ও ‘দেশে সোভিয়েত ইউনিয়নের ভাগ্যের পুনরাবৃত্তি ঘটবে না’-এ ধরনের লেখা সম্বলিত বিভিন্ন প্লাকার্ড ভ্লাদিমীর পুতিনের সমর্থকদের হাতে দেখা যায়।

‘স্বচ্ছ নির্বাচনের পক্ষে’ রাজধানীতে আয়োজিত এবারের এ সমাবেশ পূর্বে অনুষ্ঠিত হওয়া ২টি সমাবেশকেই পিছনে ফেলেছে।অংশগ্রহনকারীদের সংখ্যার দিক দিয়ে তা নতুন রেকর্ড সৃষ্টি করেছে।বিরোধীদলের সমাবেশ আয়োজকদের মতে,প্রতিবাদ কর্মসূচিতে ১ লাখ ২০ হাজারেরও অধিক সমর্থক উপস্থিত ছিলেন।তবে,পুলিশ জানায়,বিরোধীদলের ৪০ হাজারের মত সমর্থক জড়ো হয়েছেন।সমাবেশে যে সব দাবী জানানো হয় তার মধ্যে ছিল-ডিসেম্বরে পার্লামেন্ট নির্বাচনের ফলাফল বাতিল,কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশনারের পদত্যাগ,আগামী মার্চ মাসে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া রাষ্ট্রপতি নির্বাচন সুষ্ঠভাবে আয়োজন নিশ্চত করা ইত্যাদি।সমাবেশে ভ্লাদিমীর পুতিনের পদত্যাগেরও দাবী তোলা হয়।

এদিকে রাশিয়ার উরাল অঞ্চলের চেলেয়াবিনস্কে বর্তমান সরকারের সমর্থনে ‘আমরা রাশিয়ার পক্ষে’শীর্ষক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।এ ধরনের সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয় পশ্চিম সাইবেরিয়ার কেমেরোভায় ও সাখা প্রজাতন্ত্রের ইকুতস্কে।মাইনাস ৩০ ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপমাত্রা উপেক্ষা করে‘কমিউনিষ্ট’ও ‘ন্যায্য রাশিয়া’র মত বিরোধীদলগুলোর আঞ্চলিক শাখার উদ্দোগে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।এতে অংশগ্রহনকারীরা ভোট কারচুপি বিরুদ্ধে বক্তব্য দেন।‘স্বচ্ছ নির্বাচনের পক্ষে’ সমর্থন জানিয়ে নভোসিবিরস্ক ও ইরকুতস্কে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

শান্তিময় পরিবেশের মধ্য দিয়েই সমাবেশ শেষ হয়েছে।পুলিশ তাদের দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করেছে।এখন পর্যন্ত কোন প্রকার অপ্রিতীকর ঘটনার খবর পাওয়া যায় নি।