ইরান ভারতে যে খনিজ তেল রপ্তানী করে, তার ৪৫% ভারতীয় টাকায় বিক্রয় করতে সম্মত হয়েছে. ঐ অর্থ ভারতীয় ব্যাংকের এ্যাকাউন্টে জমা থাকবে, যাতে মার্কিনী অথবা ইউরোপীয় নিষেধাজ্ঞার কবলে না পড়ে. খনিজ তেলের দাম মেটানোর জন্য ইরানী ও ভারতীয় পক্ষ কোলকাতায় ইউকো ব্যাংকের শাখা বেছে নিয়েছে. টাকার বিনিময়ে খনিজ তেল ক্রয় ভারতকে ইরানের কাছে বার্ষিক ঋণ(১২৬৮ কোটি ডলার) মেটাতে সাহায্য করবে. এতদিন পর্যন্ত ভারত কেবলমাত্র ইরান থেকে আমদানী করা খনিজ তেলের ২০% টাকার বিনিময়ে কিনতো. বাকি অর্থ তুরস্কের টার্কি হাল্ক বনকাসি ব্যাংকের মারফতে ইউরো মুদ্রায় শোধ করা হতো. ইরানের বিতর্কিত পারমানবিক প্রকল্পের কারণে ইউরোপীয় সংঘ যদি সত্যিই ইরানী পেট্রোলের আমদানীর উপর নিষেধাজ্ঞা জারী করে, তাহলে তুর্কী ব্যাংকের সাথে লেনদেন বন্ধ হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা আছে. ইতিপূর্বে ভারত ঘোষণা করেছিল, যে মার্কিনী ও ইউরোপীয় নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্বেও ভারত ইরান থেকে খনিজ তেল আমদানী করা চালিয়ে যাবে. ফ্রান্স প্রেস সংবাদসংস্থা উল্লেখ করেছে, যে ইরান পৃথিবীতে মোট পেট্রোলের রপ্তানীর ১২% রপ্তানী করে.