খনিজ তেল রপ্তানীকারক দেশ গুলির সংস্থা ওপেক নিজেদের সদস্য দেশ গুলির স্বার্থ রক্ষাকেই মুখ্য মনে করে বলে রবিবারে ইরানের রাজধানীতে বর্তমানের সভাপতি ও ইরাকের খনিজ তেল মন্ত্রী আবদেল করিম আল- লুয়ৈবি ঘোষণা করেছেন. বর্তমান বছরে ইরাক এই সংস্থায় সভাপতিত্ব করছে. “ইরাক চেষ্টা করবে ওপেক সংস্থাকে কোন রাজনৈতিক খেলা থেকে নিরস্ত করতে চেষ্টা করবে. এই সংস্থা সারা বিশ্বের জন্য খনিজ তেলের স্ট্র্যাটেজিক গুরুত্বকেই প্রাধান্য দেবে”, - বলে উল্লেখ করেছেন ইরাকের মন্ত্রী ইরানের প্রথম উপরাষ্ট্রপতি মোহাম্মাদ রেজা রাহিমির সঙ্গে সাক্ষাত্কারের সময়ে.

       একই সঙ্গে আজ ইউরোপীয় সঙ্ঘের দেশ গুলির পররাষ্ট্র মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে যেমন আসা করা হচ্ছে যে, ব্রাসেলস শহরে ইরানের তেল আমদানী করা নিয়ে নিষেধাজ্ঞা ঘোষণা করা হবে. একই সময়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র প্রস্তাব করেছে সক্রিয়ভাবে ইরানের খনিজ তেলের প্রধান ক্রেতা দেশ চিন, ভারত, দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপানকে ইরান থেকে কার্বন যৌগ ক্রয়ের বিষয়ে বিরত হতে. ইরানের পররাষ্ট্র দপ্তরের সরকারি মুখপাত্র রামিন মেহমানপারাস্ত এই ধরনের কাজের নাম দিয়েছেন খুবই “নোংরা রাজনৈতিক চাপ” বলে ও ইরানের সহকর্মী দেশ গুলিকে সিদ্ধান্ত নিতে আহ্বান করেছেন নিজেদের জাতীয় স্বার্থের কথা চিন্তা করেই, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের চাপে নয়.