বাংলাদেশে রাষ্ট্রীয় কুদেতা-র প্রচেষ্টা উদ্ঘাটন এবং বানচাল করা হয়েছে, যার উদ্দেশ্য ছিল প্রধানমন্ত্রী হাসিনা ওয়াজেদের নেতৃত্বাধীন সরকারকে উত্খাত করা. এ সম্বন্ধে জানিয়েছেন দেশের সশস্ত্র বাহিনীর সরকারী প্রতিনিধি ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মুহাম্মেদ মাসুদ রাজ্জাক দেশের রাজধানী ঢাকায় জরুরী ভিত্তিতে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে. তাঁর কথায়, ইতিমধ্যে, ষড়যন্ত্রে লিপ্ত দুজন প্রাক্তন অফিসারকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে, আরও একজনের হুলিয়া জারি করা হয়েছে. আর বাকি ১৬ জন সামরিক কর্মীকে পুঙ্খানুপুঙ্খ নজরে রাখা হয়েছে. ভারতের “প্রেস ট্রাস্ট অফ ইন্ডিয়া” সংবাদ এজেন্সি ব্রিগেডিয়ার জেনারেলের কথা উদ্ধৃত করে জানিয়েছে, “আমরা বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক শাসনকে উত্খাত করার ষড়যন্ত্রের পরিকল্পনা উদ্ঘাটন করেছি, যাতে অন্তর্ভুক্ত ছিল কয়েকজন আর্মি অফিসার”. তাঁর কথায, এ ষড়যন্ত্রে যুক্ত অফিসাররা মাঝারী পর্যায়ের, আর প্রাক্তন সামরিক কর্মীদের মধ্যে ছিল একজন লেফটেনেন্ট কর্নেল, আর অন্য জন – মেজর. তিনি ঘোষণা করেন, “যথাযথ তদন্তের পরে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে তাদের বিরুদ্ধে, যারা ষড়যন্ত্রে জড়িত ছিল”. হাসিনা ওয়াজেদ প্রথমবার বাংলাদেশের সরকারের নেতৃত্ব করেন ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত. ২০০৯ সালে তিনি আবার এ পদে অধিষ্ঠিত হন, যখন তাঁর নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগ ২০০৮ সালের পার্লামেন্টারী নির্বাচনে বিশ্বস্ত ভাবে জয়লাভ করে.