রাশিয়া নির্বোধ মুক্ত হতে চলেছে. আর এই ব্যাপারে সাহায্য করবে নতুন ইন্টারনেট প্রকল্প, যা রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভের নির্দেশে জানুয়ারী মাসের শেষে চালু হবে. এই সাইটের নামও এই রকমই থাকবে "রাশিয়া নির্বোধ লোকদের বাদ দিয়ে". এই ধারণা তৈরীর কারণ হল যে, এখানে দেশের নাগরিকেরা সরকারি কর্মচারীদের বুদ্ধি রহিত কাজকর্ম নিয়ে লিখতে পারবেন. যারা সাইটের কাজ করছেন, তাদের ধারণা অনুযায়ী এই সাইটে ঢুকে দেশের নাগরিকরা রেজিস্ট্রেশন করবেন, তারপরে নির্দিষ্ট পদবী ও সংস্থার কাজের পদের উল্লেখ করে প্রশাসনিক ভুলের সম্বন্ধে তথ্য জানাবেন.

    "নির্বোধ মুক্ত রাশিয়া" সাইট তৈরী করেছে একদল পেশাদার নাগরিক, যারা দিমিত্রি মেদভেদেভের সমর্থক সামাজিক পরিষদের লোক. আপাততঃ এই ইন্টারনেট সাইটের বেটা ভার্শন পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে. ধারণা করে হয়েছে যে, সমাজের নজরে সমস্ত নির্বোধ নির্দেশ, কাজকর্ম ও বিজ্ঞপ্তিই পড়বে, যা সাধারন মানুষের জীবনকে "দুর্বিষহ" করে তোলে. সবচেয়ে আলোচিত ও স্পষ্ট সমস্যা গুলি এই সাইটে রেটিং করা হবে, যার পরে রাষ্ট্রীয় বা শহরের প্রশাসনের কাছে তা পাঠানো হবে. তারপরে হয় আইন পাল্টানোর দরকার পড়বে, অথবা কোন নির্দিষ্ট সরকারি কর্মচারীর সম্বন্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে.

    প্রসঙ্গতঃ এই সাইটের স্রষ্টারা এর মধ্যেই একটা অঙ্কের ফরমুলা বার করতে পেরেছেন, যা দিয়ে প্রত্যেক রাজ্যের গড় নির্বুদ্ধিতার নির্ণয় করা সম্ভব হয়. কিন্তু তা এখন গোপন রাখা হয়েছে, যাতে আঞ্চলিক ভাবে তা পাল্টে দেওয়ার চেষ্টা আটকানো যায়: যদি হঠাত্ কেউ কোন রাজ্যকে আক্রমণ করে সেখানে জোর করে নির্বোধ কাজকর্মের বিষয়ে ভুল তথ্য ছড়াতে চায় তা হলে. এই রকম ক্ষেত্রে ফরমুলা নিজে থেকেই অন্য ফল দেখাবে বলে ভরসা দিয়েছেন সাইট যারা বানাচ্ছেন তারা.

    সাইট নির্মাতাদের পরিকল্পনা অনুযায়ী নির্বোধ বিষয়ের উপরে বুদ্ধির বিজয় এখানে মানচিত্রে দেখা যাবে. নির্বোধ ব্যাপারকে এখানে দেখানো হবে লাল রঙে, তারপরে তা হলুদ হবে, সেটা দূর করার চেষ্টা হতে থাকলে. আর সবুজ রঙের অর্থ হবে প্রশাসনিক বাধা দূর হওয়ার প্রমাণ স্বরূপ, একই সঙ্গে দেখতে পাওয়া যাবে কোন রাজ্য গুলিতে সবচেয়ে বেশী বোকামি করা হচ্ছে.

    রাশিয়ার লোকেরা খুব উত্সাহের সঙ্গে এই প্রকল্পের খবরে আনন্দিত হয়েছেন. কারণ আগে যাতে আইনের ফাঁক ফোকর সম্বন্ধে বা সরকারি কর্তাদের অন্যায় কাজকর্ম নিয়ে কিছু বলতে গেলে অনেক সময় যেত. আর এখন "জানানো" যাবে বাড়ী থেকে না বেরিয়ে. রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ এই প্রকল্পকে এখনই "জীবনকে দুর্বিষহ করে তোলা সবচেয়ে অর্থহীণ ব্যুরোক্র্যাটিক কাজ কারবারের সম্বন্ধে প্রকাশনার এক জনতার প্রতিযোগিতা" বলে নাম দিয়েছেন.