রুশ বিজ্ঞান একাডেমীর সদস্য ইভগেনি প্রিমাকোভ মনে করেন যে,“গাদ্দাফিকে অপসারণের জন্য ন্যাটো জোটের গৃহীত পরিকল্পনা আসলে একটি বিপজ্জনক নজির:রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের এক অনিয়তাকার সিদ্ধান্তকে ব্যবহার করা হয়েছে সার্বভৌম রাষ্ট্রে জ্বলে ওঠা গৃহযুদ্ধে একটি পক্ষকে সহায়তা করার জন্য সশস্ত্র বিদেশী অনুপ্রবেশকে আইনি স্বীকৃতী দেওয়ানোর জন্য”.তিনি উল্লেখ করেছেন যে, “রাশিয়া শুধু ভূ রাজনৈতিক কারণেই নয়, বরং দেশের নিজস্ব ধারণা থেকেই মধ্যপন্থী ঐস্লামিক শক্তি গুলির সঙ্গে যোগাযোগ ও সহযোগিতায় আগ্রহী.