ইরানের সর্বোচ্চ নেতা – আয়াতোল্লা আলি হামেনেই – বলেছেন যে, তেহেরানে পরমাণু-বিজ্ঞানীর হত্যায় দোষীদের শাস্তি দেওয়া হবে. তিনি এ অপরাধ সাধনে মার্কিনী ও ইস্রাইলী গোয়েন্দা বিভাগের জড়িত থাকার অভিযোগ তুলেছেন, জানিয়েছে ইরানের সরকারী “ইর্না” সংবাদ সংস্থা. হামেনেই বলেন, “এই কাপুরুষ হত্যা পরিকল্পিত অথবা বাস্তবায়িত হয়েছিল সি.আই.এ এবং মোসাদের সমর্থনে”. বুধবার তেহেরান ইস্রাইল এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলে বিস্ফোরণে জড়িত থাকার, যার ফলে মারা যান পরমাণু-বিজ্ঞানী মুস্তাফা আহমাদি রোশান, এবং জোর দিয়ে বলে যে এ ঘটনা দেশের পারমাণবিক নীতিতে পরিবর্তন ঘটাতে পারবে না. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং তার মিত্র দেশগুলি নিশ্চয়োক্তি করছে যে, ইরানের “শান্তিপূর্ণ পারমাণবিক কর্মসূচি” পারমাণবিক অস্ত্র উত্পাদনের দিকে নির্দেশিত. ইরান বলছে যে তার উদ্দেশ্য শান্তিপূর্ণ.